parbattanews bangladesh

চকরিয়ায় স্ত্রী হত্যায় স্বামী গ্রেফতার, আদালতে জবানবন্দি

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় তামাক ক্ষেতে নিয়ে গিয়ে শ্বাসরোধ করে গৃহবধূ রোকেয়া বেগম হত্যার মূল হোতা স্বামী মোহাম্মদ রুবেলকে (২৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে রুবেল।

বৃহস্পতিবার(২৯মার্চ) দুপুরে আদালতে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে আদালতের বিচারকের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয় রুবেল। সেই জবানবন্দিতে স্বীকার করে স্ত্রী হত্যায় সেসহ আরও ৬ জন জড়িত থাকার কথা। এর পর তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করেন আদালত।

রুবেল কাকারা ইউনিয়নের একনম্বর ওয়ার্ডের শাহওমর নগর গ্রামের নুরুল আলমের ছেলে। খুনের শিকার গৃহবধূ রোকেয়া বেগম পাশ্ববর্তী ইউনিয়ন লক্ষ্যারচরের উত্তর লক্ষ্যারচর পূর্ব পাড়ার (জিদ্দাবাজার স্টেশনের পাশে) দেলোয়ার হোসেনের কন্যা।

চকরিয়া থানার এসআই সুকান্ত চৌধুরী জানান, বরইতলীর বানিয়ারছড়া পাহাড়ি এলাকা থেকে বুধবার রাতে গ্রেফতারের পর পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রুবেল স্বীকার করে তার নেতৃত্বে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার ঘটনা। তার সঙ্গে আরও ৬জন এ হত্যাকাণ্ডে অংশ নেয়। স্ত্রীকে হত্যা করার কয়েকটি কারণও সে পুলিশকে জানায়। তন্মধ্যে শ্বাশুড়ি তাকে ফাঁদে ফেলে রোকেয়া বেগমের সঙ্গে জোর করে বিয়ে দেয়। কিন্তু সেই বিয়ে মেনে নেয়নি পরিবার সদস্যরা। তাছাড়া বিয়ের সময় কথা ছিল ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা যৌতুক হিসেবেও দেওয়ার। কিন্তু সেই টাকাও দেওয়া হয়নি বিয়ের একবছর পার হলেও। টাকা চাইতে গেলে স্ত্রীর বড় দুইভাই আলমগীর ও আলী হোসেন মিলে রুবেলকে মারধর করে। এসব কারণে রুবেল সিদ্ধান্ত নেয় স্ত্রীকে চিরতরে শেষ করতে।

চকরিয়া থানার ওসি মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উম্মোচন এবং হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের শনাক্ত করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা রুবেল এবং আকাশকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদেরও খুব সহসা গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হবে।’