চকরিয়ায় বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা


মামলা

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ার চিংড়িজোন চিরিঙ্গা ইউনিয়নের চরণদ্বীপ ও সওদাগর ঘোনা এলাকায় অস্ত্র তৈরীর দুটি কারখানার সন্ধান এবং সেখানে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধারের সময় এক নারীসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় থানায় মামলা করেছে র‌্যাব। রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে বারোটার দিকে র‌্যাব কক্সবাজার ক্যাম্পের ডিএডি (এমসিপিও) মো. সোলতান মাহমুদ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। অস্ত্র আইনে দায়ের করা মামলায় ধৃত ৬ জন ও পলাতক দুই জনের নাম উল্লেখ করে ৮ জনকে আসামী করা হয়েছে।

মামলার গ্রেফতারকৃত আসামীদের ছয় জন হলো চকরিয়ার ফাঁশিয়াখালী ইউনিয়নের ছাইরাখালী পাহাড়ী গ্রামের ইদ্রিস আহমেদের ছেলে নুরুল্লাহ (৪৫), একই এলাকার নুরুল ইসলামের স্ত্রী জনু আরা বেগম (৩৫), পূর্ব বড় ভেওলার ইদমনির মৃত আবদুল বাসেদের ছেলে নুরুল আলম (৫০), কুতুবদিয়া উপজেলার কাজির পাড়ার আমির হোসনের ছেলে মহিউদ্দিন (২৪), একই উপজেলার উত্তর ধুরং এলাকার নূর মোহাম্মদের দুই ছেলে আব্দুল মান্নান (৩৫) ও আইয়ুব খান (২৭)। পলাতক দুইজন চিরিঙ্গা ইউনিয়নের ইমাম রশীদের ছেলে আবদুল জলিল ও ধৃত জনু আরার স্বামী মৃত দেলোয়ার হোসেনের ছেলে নুরুল ইসলাম।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গোপনসূত্রে খবর পেয়ে র‌্যাব কক্সবাজারের টিম চিরিঙ্গা ডলুখালী পাড়ায় অভিযান চালায়। রোববার ভোর ৪টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত ৬ ঘণ্টার অভিযানকালে রাইফেলসহ ২০টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়।  মান্নান ও জনু আরার বাড়িতে গড়ে তোলা অস্ত্রের কারখানা থেকে অস্ত্র তৈরীর বিভিন্ন সরঞ্জাম ও ৪৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার হয়।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *