চকরিয়ায় বাস-লেগুনা গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত: ৭, আহত: ১০


চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ার যাত্রীবাহী বাস ও যাত্রীবাহী লেগুনা (ছারপোকা) মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন নারীসহ ৭জন নিহত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১১টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের উপজেলা বরইতলী নতুন রাস্তার মাথা ফিলিং ষ্টেশন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহত হয়েছে দুই বাসের অন্তত নারী-শিশুসহ ১০ জন। আহতদের মধ্যে তিনজনকে মুমূর্ষ অবস্থায় প্রথমে উপজেলা সরকারি হাসপাতালে ও পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিহতরা হলেন, লেগুনা গাড়ির চালক চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার আধুনগর স্টেশন এলাকার আহমদ হোসেনের পুত্র খাইর আহমদ(৩৫), একই উপজেলার আধুনগর ইউনিয়নের আবুল কাসেমের স্ত্রী জাইতুন আক্তার(৩০), মোস্তাক আহমদের স্ত্রী রোকেয়া বেগম (৫০), চুনতী হিন্দুপাড়া এলাকার যতীন্ত্র সিকদারের স্ত্রী বাসন্তী সিকদার(৬৫), চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের লালব্রিজ এলাকার মনজুর আলমের পুত্র জহির আহমদ (৩৩) ও একই ইউনিয়নের পাহাড় পাড়া এলাকার সাইদুল আলমের পুত্র আবুল কাশেম (২৮, বরইতলী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের উপরপাড়া এলাকার মনজুর আলমের পুত্র শফিকুল কাদের তুষার (১৮)।

মহাসড়কের বানিয়ারছড়াস্থ চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ (আইসি) নূর-এ আলম জানান, মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনায় তিনজন মহিলা ও চারজন পুরুষ নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে লেগুনা এক চালক ও ওই গাড়ির যাত্রী ছিল।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চট্টগ্রাম ছেড়ে আসা কক্সবাজারমুখি স্টার লাইন পরিবহনের (ঢাকা মেট্টো-ব-১৫-০৬৩৮) যাত্রীবাহী একটি বাস চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ার বরইতলী ইউনিয়নের নতুন রাস্তার মাথার শাহ ওমর ফিলিং ষ্টেশনের সামনে পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা চট্টগ্রামের লোহাগাড়ামুখি যাত্রীবাহী অপর একটি লেগুনা গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে একজন নিহত হয়।

মুমূর্ষ অবস্থায় আরো কয়েকজনকে চকরিয়া উপজেলা সরকারি হাসপাতালসহ পৌরশহরের বিভিন্ন হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে আরও ৬জনের মৃত্যু হয়। এছাড়া আহতদের মধ্যে তিনজনকে মুমূর্ষ অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

বেলা ১.৩০টার দিকে চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান এই দুর্ঘটনায় ৭ জন নিহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। দুর্ঘটনায় পতিত যাত্রীবাহী বাস দুটি মহাসড়ক থেকে ক্রেন দিয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এতে প্রায় আধঘন্টা পর মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

চকরিয়া থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, চকরিয়ার বরইতলী এলাকায় বাস ও লেগুনার গাড়ি মুখোমুখি সংঘর্ষে ৭জন নিহত হয়। দূর্ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *