চকরিয়ায় চিংড়িজোনের ত্রাস রাইফেল পটু অস্ত্রসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার: ৩টি বন্দুক ও ১৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার


চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় চিংড়িজোন এলাকার ত্রাস ৮টি মামলার পলাতক আসামি আবদুল করিম প্রকাশ রাইফেল পটুকে (৪০)কে গ্রেফতার করা হয়েছে। র‌্যাবের একটি টিম প্রায় ঘন্টাব্যাপী অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। র‌্যাব এ সময় তল্লাশি চালিয়ে অস্ত্র-গুলি উদ্ধার করেন। তার কাছ থেকে তিনটি ওয়ান শ্যুটারগান (এলজি), একটি রামদা ও ১৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার (১৮ডিসেম্বর) ভোররাত ৩টার দিকে উপজেলার চিরিঙ্গা ইউনিয়নের ৪নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যম বুড়িপুকুর পাড়া এলাকায় বাড়ি ঘেরাও করে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। গ্রেফতার হওয়া আবদুল করিম প্রকাশ রাইফেল পটু চিরিঙ্গা ইউনিয়নের মধ্যম বুড়িপুকুর পাড়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, বিগত এক যুগের অধিক সময় ধরে চিরিংগা চিংড়ী জোন এলাকায় তার নিজস্ব স্বশস্ত্র ক্যাডার বাহিনী দিয়ে নানা ধরণের অপরাধ ও অপকর্ম করে আসছিল। তার নির্যাতন ও অত্যাচারের ভয়ে এলাকায় কোন নিরীহ ব্যক্তি মুখ খুলে কিছুই বলতে পারত না। পটু ছিল চিংড়ি জোন এলাকায় একটি স্বশস্ত্র ক্যাডার বাহিনীর প্রধান। পটুর নেতৃত্বে চিংড়িঘের ও তার আশপাশের এলাকায় প্রকাশ্যে ছিনতাই, ডাকাতি, সন্ত্রাসীসহ নানা ধরণের কর্মকাণ্ড অব্যাহত ছিল। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সাধারণ মানুষ জীবন বাঁচানোর ভয়ে কোন অপরাধ দেখেও না দেখার মতো করে থাকতে হতো। তাকে গ্রেফতার করার কারণে এলাকায় সাধারণ মানুষের স্বস্তি ফিরে পেয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান।

কক্সবাজারস্থ র‌্যাব-৭ ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, র‌্যাবের একটি টিম গোপনসূত্রে খবর পেয়ে অভিযান চালায় ভোর রাত আড়াইটা থেকে সাড়ে তিনটা পর্যন্ত। সন্ত্রাসী বাহিনীর লিডার পটুর বসতঘর ঘেরাও করে তাকে গ্রেফতার ও অস্ত্রসহ গুলি উদ্ধার হয়। আটক করিম ওরফে পটুর বিরুদ্ধে থানায় ৮টি মামলা রয়েছে। অস্ত্রসহ গ্রেফতা হওয়ায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে আরো একটি মামলা দায়ের হয়েছে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *