চকরিয়ায় ঘুর্ণিঝড় ‘মোরায়’ আক্রান্তদের গৃহনির্মাণে কারিতাসের অর্থ বিতরণ


চকরিয়া প্রতিনিধি:

ঘুর্ণিঝড় ‘মোরা’য় আক্রান্ত হয়ে সর্বস্ব হারানো পরিবারের মাঝে বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা কারিতাস বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে নগদ টাকা বিকাশের বিতরণ কার্যক্রমের আওতায় কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের ২৩০টি পরিবারের মাঝে উপকারভোগী প্রত্যেক পরিবারকে গৃহ নির্মাণ বা মেরামত বাবদ প্রথমদফায় নগদ ১০ হাজার টাকা করে বিতরণ করা হয়েছে।

কোনাখালী ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান দিদারুল হক সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উপকারভোগী পরিবার সদস্যদের হাতে নগদ টাকা তুলে দেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ। প্রথম দফায় গতকাল বিতরণ করা হয়েছে ২৩ লাখ টাকা। দ্বিতীয় দফায় বিতরণ করা হবে আরো ২৩ লাখ টাকা। কোনাখালী ইউনিয়নে উপকারভোগী ২৩০টি পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে ৪৬ লাখ টাকা।

এ সময় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মাতামুহুরী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, কারিতাস বাংলাদেশ চট্টগ্রাম অঞ্চলের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের জুনিয়র কর্মসূচি কর্মকর্তা ড্যানিয়েল ছিপু গোমেজ, প্যানেল চেয়ারম্যান শফিউল কাদের, ইউপি সচিব সাইফুল ইসলাম, নারী মেম্বার নাছিমা আক্তার, আছিয়া বেগম, আনোয়ারা বেগম, মেম্বার মোহাম্মদ হোসেন, আবদুল নবী, মনির উদ্দিন, জহির আহমদ, আবুল কালাম, ছরওয়ার উদ্দিন, কলিম উল্লাহ, আনোয়ারুল ইসলাম বাদশা, চেয়ারম্যানের সহকারী শহিদুল ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সংশ্লিষ্টরা এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও উপকারভোগী পরিবারের নারী-পুরুষেরা।

কারিতাস বাংলাদেশ চট্টগ্রাম অঞ্চলের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের জুনিয়র কর্মসূচি কর্মকর্তা ড্যানিয়েল ছিপু গোমেজ জানান, ঘুর্ণিঝড় মোরা-২০১৭ এ ক্ষতিগ্রস্ত ঝুঁকিপূর্ণ পরিবারদের জন্য পুনরুদ্ধার সহায়তা (গৃহ মেরামত-নির্মাণ) কর্মসূচির অধীনে একটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়। এই প্রকল্পে দাতা সংস্থা ইউকেএইড এর অর্থ সহায়তা এবং ইউনোপস-ডিএফআইডি এর ব্যবস্থাপনায় কারিতাস বাংলাদেশ এ অর্থ সহায়তা দিচ্ছেন ঘুর্ণিঝড় মোরায় আক্রান্ত চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার ১৪৩৬ পরিবারকে। তিনি আরো জানান, দুই উপজেলার উপকারভোগী প্রত্যেক পরিবারকে গৃহ নির্মাণ বা মেরামত বাবদ দেওয়া হবে নগদ ২০ হাজার করে টাকা।

টাকা বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাফর আলম বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার গরীব মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে বিশ্বাসী। বিগত সময়ে একাধিক দুর্যোগে সরকার চকরিয়া উপজেলার ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য সাধ্যমতো সহযোগিতা দিয়েছেন। সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সমুহ ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাড়িঁয়েছে। বিশেষ করে ‘চকরিয়ায় যে কোন সময় প্রাকৃতিক দুর্যোগ আঘাত হানলেই কারিতাস আমাদের পাশে এসে দাঁড়ায়। তারই ধারাবাহিকতায় উপজেলায় ঘুর্ণিঝড় মোরায় আক্রান্ত হয়ে বসতবাড়ি হারানো পরিবারের প্রত্যেককে নগদ ২০ হাজার করে টাকা বিতরণ করছে সংস্থাটি। আশাকরি উপকারভোগীরা সরকারি-বেসরকারি অনুদানের এই টাকার সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করে নতুন বসতি নির্মাণের মাধ্যমে পরিবার নিয়ে বেঁচে থাকার নতুন দিশা খুঁজে পাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *