ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে রোধ করুন চুলপড়া


পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

চুলপড়া নারী কিংবা পুরুষ উভয়েরই সমস্যা। এই সমস্যাটি হতে পারে হরমনের মাত্রা কম-বেশি হওয়ার কারণে, ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায়, কিংবা খাবার বা গোসলের পানির কারণে।

সমস্যাটা যে কারণেই শুরুহোক না কেন এর সমাধানের চেষ্টায় সকলেরই যুদ্ধংদেহী মনোভাব। চুলপড়া রোধে এই ডাক্তার থেকে সেই ডাক্তার, এই ক্লিনিক থেকে সেই ক্লিনিক দৌড়ে বেড়াচ্ছেন অনেকে। চুলপড়া সমস্যার চিকিৎসায় বছরে ৩৫০ কোটি ডলার ব্যয় করে মার্কিনরা।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত ফলাফল ‘টাক মাথা’। কারণ চুলপড়া রোধে যে চিকিৎসার কথা শোনা যায় তার বেশিরভাগই প্রচারনির্ভর অপচিকিৎসা। আমেরিকান হেয়ার লস এসোসিয়েশনের তথ্য মতে বিশ্বে চুলপড়ার সমস্যায় ব্যবহৃত শতকরা ৯৯ ভাগ প্রডাক্টের কোনো অনুমোদন নেই!

তাহলে চুলপড়া সমস্যার কি কোনো সমাধান নেই? অকালেই চুল হারিয়ে ‘টাক মাথা’ হতে হবে?

প্রাকৃতিক চিকিৎসাবিদ্যা বলছে, চুলপড়া রোধে আপনার হাজার হাজার টাকা খরচের প্রয়োজন নেই। প্রয়োজন নেই ডাক্তারের দরজায় দরজায় ছুটে বেড়ানোর। বরং শান্তি ঘুমিয়ে ঘুমিয়েই রোধ করতে পারেন আপনার স্বাধের চুলের পড়ে যাওয়া।

অবাক শোনালেও আক্ষরিক অর্থেই ঘুমিয়ে ঘুমিয়েই আপনার চুলপড়া রোধ করতে পারেন। আর সেটা রান্নাঘরে থাকা রসুন ব্যবহার করেই।

‘লাইফ হেলথ এন্ড ফুড’ নামক ওয়েবসাইটে রসুনের রস ব্যবহার করে কী উপায়ে আপনার চুলপড়া রোধ করবেন সে সম্পর্কে একটি পরামর্শ দিয়েছে।

ওয়েবসাইটির নিবন্ধে বলা হয়েছে, রসুনে থাকা এক ধরনের সালফার যৌগ আপানার চুলপড়া প্রতিরোধ করে।

সেখানে বলা হয়েছে, ঘুমানোর আগে রসুনের এক চামচ পরিমাণ রস অলিভ ওয়েলের সঙ্গে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগিয়ে রাখলে কয়েক দিনের মধ্যেই বিস্ময়কর ফলাফল দেখতে পাবেন।

কী করবেন?

প্রয়োজন রসুন নিয়ে খোসা ছাড়িয়ে নিন। এরপর রসুনের কোয়াগুলো কুচিকুচি করে কাটুন। পরে ব্লেন্ডার বা কোনো উপায়ে থেতলে নিন। এরপর একটি পরিস্কার কাপড়ের রসুনগুলো নিয়ে চেপে রস সংগ্রহ করুন।

এক টেবিল চামচ পরিমাণের রস সংগ্রহ হলে আঙ্গুলের ডগায় করে চুলের গোড়ায় লাগান। এরপর এক ঘণ্টা পরে মাথায় অলিভ ওয়েল দিয়ে ভালোমতো ম্যাসাজ করুন। মাথায় একটি ক্যাপ পড়ে বা কাপড় বেধে ঘুম দিন। এরপর সকালে শ্যাম্পু করে নিন।

এভাবে কয়েকদিন করার পর ফলাফলটা দেখে চমকে যাবেন আপনি নিজেই।

One thought on “ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে রোধ করুন চুলপড়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *