ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদলের অনুমোদিত আংশিক কমিটিতে অনাস্থা


 

ঘুমধুম প্রতিনিধি:

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলাধীন ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদলের সম্প্রতি অনুমোদন দেওয়া ৫ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা ও অনাস্থা জ্ঞাপন করেছেন ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদলের সিনিয়র নেতাকর্মীরা।

উপজেলা ছাত্রদলের প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানা যায়, বৃহস্পতিবার(৩১ আগস্ট ) মো. শাহ নেওয়াজকে সভাপতি, মো. আলমগীরকে সিঃ সহ-সভাপতি, মো. শাহ জালালকে সাধারণ, মো. শাকিলকে যুগ্ম সম্পাদক, আতিকুর রহমানকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটি অনুমোদন দেয় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি আবু সুফিয়ান চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আবু কায়সার।

ওই ইউনিয়ন ছাত্রদলের আংশিক কমিটি অনুমোদন দেওয়ার পরপরই প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ করে ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদলের সিনিয়র নেতাকর্মীরা। তাৎক্ষনিক প্রতিবাদ ও মিছিল সমাবেশ করে। ঘুমধুম বেতবুনিয়া বাজার চত্বরে অনুষ্ঠিত ওই প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন, ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাবেক সি. সহ-সভাপতি বর্তমান সভাপতি পদপ্রার্থী জমির উদ্দিন সিকদার, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঘুমধুম ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি মুজিবুল হক, বিশেষ অতিথি ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাবেক কমিটির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম জিয়া, সিনিয়র ছাত্রদল নেতা আবদুল হাকিম, যুগ্ম সম্পাদক খাইরুল আমিন, ছাত্রদল নেতা আবদুললাহ, জাফর আলম, শহিদুল ইসলাম, এমএজি ওসমানী, ফরিদ আলম, খাইরুল আমিন, রাসেদ, নুরুল হক, নুরুল ইসলাম, ইলিয়াছ সহ শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

ওই প্রতিবাদ সভায় ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি পদপ্রার্থী জমির উদ্দিন সিকদার বলেন, আমরা সকলের অজান্তে উপজেলা ছাত্রদল একজন ছাত্রশিবিরের কক্সবাজার সরকারি কলেজের দায়িত্বশীলকে কী করে ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি মনোনীত করল। তা আমাদের বোধগম্য নয়। আমরা ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদল তাদের অবাঞ্চিত ঘোষণা করলাম। ঘুমধুম ইউনিয়নের সকল সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডে এ অবৈধ কমিটিকে প্রতিহত করা হবে।

ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি সিরাজুল ইসলাম জিয়া বলেন, গত মাসে বিনা কারণে ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদল বিলুপ্ত ঘোষণা করে। বিকাশের মাধ্যমে যে কমিটি অনুমোদন দিল তার কোন ভিত্তি নেই। উপজেলা ছাত্রদল এ কমিটি অনুমোদনের মাধ্যমে তারা সাংগঠনিক ভাবে অযোগ্যতার প্রমাণ দিল। তারা কখনো এ বিশৃঙ্খলার দ্বায় এড়াতে পারেনা।

এ ব্যাপারে উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি আবু সুফিয়ান চৌধুরীর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি আংশিক কমিটি অনুমোদনের কথা স্বীকার করে বলেন, আপতত আমরা ৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি অনুমোদন দিয়েছি। পর্যায়ক্রমে সকল নেতাকর্মীদের অন্তর্ভূক্তি করে পূর্ণাঙ্গ ঘুমধুম ইউনিয়ন ছাত্রদল কমিটি অনুমোদন দেওয়া হবে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *