ঘুমধুমে পাহাড় ধস: ৬ ঘণ্টা পর ১ জনকে জীবিত উদ্ধার


ঘুমধুম প্রতিনিধি:

বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমে পাহাড় ধসে হতাহতের ঘটনায় ৬ ঘণ্টা পর ১ জনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের মনজয়পাড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে উদ্ধারকৃতের নাম পরিচয় জানা যায় নি।

এতে নারীসহ ৫ শ্রমিক মাটির নিচে চাপা পড়লে তাৎক্ষণিকভাবে মোহাম্মদ বেলালের ছেলে নুর মোহাম্মদকে (২৭) জীবিত উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে সে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অন্যদিকে এ ঘটনায় মাটিচাপা পড়া অন্য ৩ শ্রমিক এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। তাদেরকে উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ ও মেম্বার ক্যামরা উ মারমা জানান, মনজয় পাড়া এলাকায় পুতুইন্না নামের জনৈক ব্যবসায়ী তার মাছের খামারে পাহাড় ঘেষে নালা তৈরি করছিলেন। এজন্য সকাল থেকে ৫ জন শ্রমিক মাটি কাটছিলেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মধ্যে মাটি কাটার সময় পাহাড়ের একটি বিশাল অংশ ধসে তাদের ওপর পড়ে। এতে তারা সবাই মাটিচাপা পড়েন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শ্রমিকরা পাহাড়ের নিচে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় কাজ করছিলেন। হঠাৎ তাদের ওপর পাহাড় ধসে পড়ে। স্থানীয়রা তাৎক্ষণিকভাবে নূর মোহাম্মদকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হন। তবে বাকিরা ঘটনাস্থলেই মারা যান।

খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ ও বিজিবি ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে। তবে লাশগুলো ২০ থেকে ৩০ ফুট মাটির নিচে চাপা পড়ে আছে বলে এখনো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

উদ্ধার অভিযানে অংশ নিতে কক্সবাজার থেকে দমকল বাহিনীর সদস্যরা ইতিমধ্যে উপস্থিত হয়েছেন এবং পুলিশ, বিজিবি, অানসারসহ স্থানীয়রা উদ্ধার কাজে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরোয়ার কামাল ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উদ্ধার অভিযান পর্যবেক্ষণ করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *