গুইমারায় ধানক্ষেত থেকে বাঙ্গালীর লাশ উদ্ধার


গুইমারা প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির গুইমারায় ধানক্ষেত থেকে আনোয়ার হোসেন নামের এক বাঙালীর লাশ পাওয়া গেছে।

রবিবার (২২ এপ্রিল) গুইমারা ডাক্তারটিলাস্থ আমানউল্ল্যাহর ধানক্ষেত থেকে সকালে তার লাশ উদ্ধার করে গুইমারা থানা পুলিশ।

নিহত আনোয়ার হোসেন (৪৫) কুমিল্লার চিতষী এলাকার মৃত এছাক মিয়ার ছেলে। ব্যক্তিগত জীবনে চার সন্তানের জনক তিনি।

বছর দেড়েক আগে তার চাচাত ভাই আমানউল্ল্যার বাড়িতে থেকে দিনমজুর হিসেবে কৃষি কাজ করতেন।

গত বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) আমানউল্ল্যার নিকট থেকে কাজের তিন হাজার টাকা  নিয়ে বিকাল বেলা বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর  থেকে নিখোঁজ হয় সে।  তবে সন্ধ্যায় চা’য়ের দোকানে স্থানীয় অনেকে তাকে দেখেছে মর্মে জানান।

রাতে বাড়ি না ফেরায় আমান উল্ল্যাহ খোঁজাখুঁজি করেছে বলে জানিয়েছেন।  তবে থানা বা কোন প্রশাসনকে অবগত করেনি নিহতের চাচাত ভাই।

২২ এপ্রিল সকালে স্থানীয়রা ধানক্ষেত থেকে পঁচা গন্ধ পেয়ে এগিয়ে গিয়ে লাশ দেখে গুইমারা থানা পুলিশকে খবর দেয়।  খবর পেয়ে গুইমারা থানার দায়িত্বরত অফিসার ইনচার্জ মো. গেয়াসউদ্দিন পুলিশ সদস্যদের নিয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করেন বলে জানান তিনি। তবে নিহতের বিষয়ে কোন কারণ এখনও পর্যন্ত উদঘাটন করা বা জানা যায়নি।

এ বিষয়ে নিহতের চাচাত ভাই আমানউল্ল্যাহ বলেন, সে আমার বাড়িতে থেকে কাজ করতো। মাঝে মাঝে চলে যেত। আবার আসতো।

গত বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) কাজের টাকা নিয়ে বেরিয়েছে সে। এরপর তার আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। আজ লাশের কথা শুনে এসে দেখলাম সে আমার ভাই আনোয়ার।

সংবাদকর্মীর প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নিহতের কোন শত্রু নেই তবে কিভাবে কি হয়েছে এখনো ধারনা করতে পারছেন না তিনি।

গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. গেয়াসউদ্দিন  বলেন, নিহত আনোয়ারের লাশ ধানক্ষেত থেকে উদ্ধার করে খাগড়াছড়ি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে গুইমারা থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহতের মৃত্যুর প্রকৃত কারণ উদঘাটনে তদন্ত চলছে বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *