গাঁজা আর হেরোইনের ধোঁয়ায় আমাদের চারপাশের সবকিছু বিষাক্ত


মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধি:

মাদকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে মাটিরাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম তাজু বলেছেন, আর কোথাও বাকি নেই। প্রায় সকল জায়গাতেই মাদকের অনুপ্রবেশ ঘটে গেছে। শহর ছাড়িয়ে আজ গ্রামেও মাদক ছড়িয়ে পড়েছে। এমন কোথাও নেই যেখানে মাদকের বিস্তৃতি ঘটেনি। শিক্ষিত সমাজ ও সচেতন মহল এগিয়ে আসলে সমাজের বিশাল একটি অংশ যারা আগামির ভবিষ্যৎ তারা মাদকের ছোঁবল থেকে রক্ষা পাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

‘আগে শুনুন: শিশু ও যুবাদের প্রতি মনোযোগ দেয়াই তাদের নিরাপদ বেড়ে ওঠার প্রথম পদক্ষেপ’ শীর্ষক প্রদিপাদ্যকে সামনে রেখে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষ্যে বুধবার বেলা ১২টার দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত র‌্যালি শেষে মাটিরাঙ্গা মিউনিসিপ্যাল মডেল হাই স্কুলে মাদক বিরোধী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মো. শামছুল হক’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম মশিউর রহমান ও মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সাহাদাত হোসেন টিটো বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। মাটিরাঙ্গা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মীর মোহাম্মদ মোহতাসিম বিল্লাহ, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক সুবাস চাকমা, মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরা ও মাটিরাঙ্গা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবুল হাসেম অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

গাঁজা আর হেরোইনের ধোঁয়ায় আমাদের চারপাশের সবকিছু বিষাক্ত হয়ে গেছে উল্লেখ করে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম মশিউর রহমান বলেন, স্কুলে পড়ুয়া ছেলে-মেয়েরাও আজ মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে। প্রথমে কৌতুহল তারপর অভ্যাস। এরপর আস্তে আস্তে নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়ছে স্কুল পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীরা। মাদকাসক্ত হলে তার ভয়াবহতা এবং ভবিষ্যৎ কি এসব নিয়ে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আলোচনা হয়না উল্লেখ করে তিনি বলেন, শুধু পাঠ্যবইয়ের শিক্ষার উপরই জোর দেয়া হয়, কিন্তু বাস্তবভিত্তিক কোন বিষয়ে তেমন গুরুত্ব দেয়া হয়না।

পারিবারিকভাবেও মাদকের ভয়াবহতার উপর শিক্ষা দেয়া হয়না মন্তব্য করে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম মশিউর রহমান বলেন, অনেক পরিবার আছে বড়দের সাথে ছোটদের একটা দুরত্ব থাকে। বড়দের সাথে ছোটদের দুরত্ব কমিয়ে আনতে হবে। কারণ পরিবারই হচ্ছে মানুষের শিক্ষার সবথেকে বড় সুতিকাগার।

বাংলাদেশের বাস্তব প্রেক্ষাপটে শিক্ষার মাধ্যমে সচেতনতা সৃষ্টির মধ্যদিয়েই কেবলমাত্র মাদকের ব্যাপারে সচেতন করা সম্ভব। মাদক ব্যবসায়ীদের প্রশ্রয় না দিতে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সাহাদাত হোসেন টিটো।

সভাপতির বক্তব্যে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. শামছুল হক বলেন, আমাদের প্রয়োজনেই আমাদেরই জেগে উঠতে হবে। সচেতনতার আলো ছড়িয়ে দিতে হবে চারদিকে। দায়িত্ববোধ, কর্তব্যবোধ এবং বিবেকবোধ থেকেই এগিয়ে আসতে হবে আমাদের। সকলে মিলে এগিয়ে এলে মাদকের থাবা থেকে আমরা আমাদের প্রিয় মানুষগুলোকে বাঁচাতে পারবো।

পরে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষ্যে স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে মাদক বিরোধী রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ শেষে শিক্ষার্থীদের মাদক বিরোধী শপথবাক্য পাঠ করান মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম মশিউর রহমান।

এর আগে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকতা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণের এক মাদক বিরোধী র‌্যালি মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ থেকে শুরু হয়ে মাটিরাঙ্গার গুরত্বপুর্ণ সড়ক ঘুরে মাটিরাঙ্গা মিউনিসিপ্যাল মডেল হাই স্কুলে গিয়ে শেষ হয়।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কৃষ্ণলাল দেবনাথ, মাটিরাঙ্গা ডিগ্রি কলেজের বাংলা বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক মো. আবুল হোসেন পাটোয়ারী, মাটিরাঙ্গা ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ কাজী মো. সলিম উল্যাহ, মাটিরাঙ্গা মিউনিসিপ্যাল মডেল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. নুরুল ইসলাম এবং মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো. আলাউদ্দিন লিটন প্রমুখ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *