খুনিয়া পালংয়ে কিশোরী অপহরণ


উখিয়া প্রতিনিধি:

খুনিয়া পালংয়ের ৩নং ওয়ার্ডের ছৈয়দ পাড়া গ্রামে র্দূবৃত্তরা কমান্ডো স্টাইলে বাড়িতে ঢুকে ফায়জা আক্তার (১৩) নামক এক কিশোরীকে অপহরণ করেছে। এ সময় অস্ত্রধারী দুর্বৃত্তরা মালামাল লুটপাট ও বাড়ি ভাংচুর চালায়।

শনিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। অপহণের ৩দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও অপহৃতা কিশোরী উদ্ধার না হওয়ায় পরিবার পরিজন চরম উৎকন্ঠায় জীবন-যাপন করছে।

এমনকি চিহিৃত দুর্বৃত্তদের হুমকি-ধমকির মুখে প্রাণের ভয়ে অপহৃতার মা রুজিনা আক্তার-বাবা সিরাজুল ইসলাম ছোট ছোটছেলে মেয়ে নিয়ে পালিয়ে  উখিয়ার গ্রামের বাড়িতে চলে এসেছে বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন। এ বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে অবহিত করা হয়েছে।

জানা যায়, রামু উপজেলার খুনিয়া পালং ইউনিয়নের মির্জা আলীর দোকানের পশ্চিমে ছৈয়দ পাড়া গ্রামের গত ৪বছর পূর্বে সিরাজুল ইসলাম ও তার পরিবার বসবাস শুরু করে। তাদের পূর্বেকার বাড়ি ছিল উখিয়ার রাজা পালং ইউনিয়নের ফলিয়া পাড়া গ্রামে। অভিযোগে প্রকাশ নতুন এলাকায় বসবাস শুরু করার সুযোগ নিয়ে ওই এলাকার মোহাম্মদ হোসনের পুত্র আমির আলী (৩৫) নামক এক ব্যক্তি কিশোরী কন্যা ফায়জা আক্তারকে বিয়ে করার কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে রাজি না হওায়ায় তিনি নানা রকম  হুমকি-ধমকি দেয়। মা রুজিনা আক্তার অভিযোগ করে বলেন, গত শনিবার তিনি উখিয়ায় বাপের বাড়িতে বেড়াতে আসে। তার অনুপস্থিতির সুযোগে ওই দিন রাতে আমির আলীর নেতৃত্বে এক দল দুর্বৃত্ত বাড়িতে ঢুকে আমার কিশোরী মেয়েকে জোর পূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায়। এমনকি বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর সহ মালামাল লুটপাট করে।

অপহৃতার পরিবার আরও জানান, মোহাম্মদ হোসনের পুত্র আবুল হোসন, ছৈয়দ হোসন ও শারুকত এবং আজিজ মিয়ার পুত্র মোহাম্মদ আলম অপহরণ ও বাড়ি ভাংচুরের ঘটনায় জড়িত। এ ব্যপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *