খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় চাকমা যুবক কর্তৃক চাকমা ছাত্রী ধর্ষিত, হাসপাতালে ভর্তি


পার্বত্যনিউজ রিপোর্ট:
মাত্র পাঁচ দিনের ব্যবধানে খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় ফের ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। তবে এবার চাকমা সম্প্রদায়ের সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে একই সম্প্রদায়ের বড়পেটা চাকমা নামে এক বখাটে কর্তৃক।

বৃহস্পতিবার(২আগস্ট) সন্ধ্যায় দীঘিনালার মেরুং ইউনিয়নের চৌধুরী পাড়ায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ধর্ষিতাকে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ধর্ষক পলাতক।

ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রীর পিতা ললিত চাকমা জানায়, সন্ধ্যা ৬টার দিকে তার মেয়ে ছাগল খুঁজতে গেলে বখাটে বড়পেটা চাকমা একা পেয়ে তার মেয়েকে জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ধস্তাধস্তির সময় শিশুটি মাথায় আঘাত পায়। শিশুটির চিৎকার শুনে লোকজন এগিয়ে গেলে ধর্ষক পালিয়ে যায়।

খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার নয়নময় ত্রিপুরা জানান, মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে ধর্ষণের কথা বলা হয়েছে। ডাক্তারী পরীক্ষার পর পরিস্কার বলা যাবে।

খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, রাত পৌণে ৯টার দিকে ঐ স্কুল ছাত্রী(১৪)কে বাবাসহ পরিবারের লোকজন হাসপাতালে ভর্তি করে। শিশুটির মাথায় আঘাত পেয়েছে।

দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুস সামাদ জানান, ঘটনা শুনেছি। তবে এখনো কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেনি।

উল্লেখ্য, গত শনিবার(২৮ জুলাই) দুপুুরে দীঘিনালার পুনাতি ত্রিপুরা কৃত্তিকা নামে পঞ্চম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর নশংসভাবে হত্যা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *