খাগড়াছড়িতে ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেইজ প্রকল্পের শোভাযাত্রা


নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেইজ প্রকল্পের প্রচারাভিযানের অংশ হিসেবে রবিবার (১৪ জানুয়ারি) খাগড়াছড়িতে শোভাযাত্রা বের করা হয়। খাগড়াছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে বের হওয়া শোভাযাত্রাটি শহরের গুরুত্বপুর্ণ সড়ক পদক্ষিণ করে শেষ হয়। পরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে খানা তথ্য ভাণ্ডার শুমারী ও জরিপ কমিটির এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় জানানো হয় যে, অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে দারিদ্র বিমোচন, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসুচি বাস্তবায়নে উপকারভোগী চিহ্নিত করতে এবং দ্বৈততা পরিহারে একটি তথ্য ভাণ্ডার গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মাধ্যমে রবিবার (১৪ জানুয়ারি) থেকে  আগামী ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত  তিন পার্বত্য জেলাসহ চট্টগ্রাম, ঢাকা বিভাগ এবং ময়মনসিংহ বিভাগের নেত্রকোনা জেলাসহ দেশের ২৫টি জেলায় খানা জরিপের মাধ্যমে এ তথ্য ভাণ্ডার গড়ে তোলা হবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক  (রাজস্ব ) কাজী মোহাম্মদ চাহেল তস্তরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ড. গোফরান ফারুকী,  ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক ও জেলা স্থায়ী শুমারী কমিটির সদস্য সচিব এএইচএম ওহিদুজ্জামান বক্তব্য রাখেন। শুমারীর কার্যক্রম নিয়ে পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থাপনা করেন পরিসংখ্যান বিভাগের রংপুর জেলার উপ-পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম।

সভায় জানানো হয়, খাগড়াছড়ি জেলাকে দুইটি সমন্বয় এলাকা ভাগ করে ৪৫টি জোন এলাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। মৌজা ভিত্তিক পাড়া এবং গ্রামগুলোর খানা নির্ধারণ করে প্রয়োজনীয় সংখ্যক তথ্য সংগ্রহকারী এবং সুপারভাইজার নিয়োগ করা হয়েছে। খানার তথ্য সংগ্রহকালে প্রতিটি খানার সদস্যদের জন্মনিবন্ধন সনদ বা জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে সহায়তা করার জন্য সভায় সকলের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়। এ ক্ষেত্রে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং গণমাধ্যম কর্মীদের সহযোগিতা কামনা করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং প্রেসক্লাবের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, পর্যায়ক্রমে সারাদেশে খানা জরিপের মাধ্যমে এ তথ্য ভাণ্ডার গড়ে তোলা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *