খাগড়াছড়িতে চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের দুই নেতাকে অবাঞ্চিত ঘোষণা


নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

সংগঠনের নামে চাঁদাবাজি ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের  কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল মজিদ ও সংগঠনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আসাদুল্লাহ আসাদকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে পার্বত্য বাঙ্গালি ছাত্র পরিষদের একাংশ এ ঘোষণা দেন। সাংবাদিক সম্মেলনে তারা নিজেদের নিরাপত্তাও দাবি করেন।

সাংবাদিক সম্মেলনে পার্বত্য বাঙ্গালি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির প্যানেল সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম মাসুদ, সদর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. মিলন, পৌর আহ্বায়ক সোবহান উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে বাঙ্গালি ছাত্র পরিষদ কোন প্রকার চাঁদাবাজির সাথে লিপ্ত নয় উল্লেখ করে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, প্রতিষ্ঠার পর থেকে পার্বত্য বাঙ্গালি ছাত্র পরিষদ পাহাড়ের পিছিয়ে পড়া ও নিরীহ মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য কাজ করে আসছে। সম্প্রতি একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান থেকে সংগঠনের নাম ভাঙ্গিয়ে আব্দুল মজিদ ও আসাদ উল্লাহ মিলে ৮ লক্ষ টাকা চাঁদা নিয়ে তা আত্মসাত করেছে।

এ ধরণের অসাধু কার্যক্রমের সাথে পার্বত্য বাঙ্গালি ছাত্র পরিষদ জেলা শাখার কোন নেতা-কর্মী ও সংগঠন জড়িত নয় দাবি করে লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, চাঁদাবাজিসহ সকল ধরণের ঘৃণিত কার্যক্রমের বিরুদ্ধে সংগঠনটি স্বোচ্ছার ছিলো ও আছে।  তাই সংগঠনের সুনাম রক্ষার্থে কেন্দ্রীয় বাঙ্গালি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইঞ্জি. আব্দুল মজিদ ও সম্পাদক আসাদ উল্লাহ আসাদকে অবাঞ্চিত করার ঘোষণা করে তাদের সাথে সংগঠনের কোন নেতা-কর্মীকে যোগাযোগ ও সম্পর্ক না রাখার অনুরোধ জানানো হয়।

তবে চাঁদাবাজির অভিযোগ অস্বীকার করে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের  কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল মজিদ বলেন, তার সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য চাঁদাবাজরাই এমন সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেছে।

এ বিষয়ে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের উপদেষ্টা ও নাগরিক কমিটির চেয়ারম্যান আল-কাছ আল মামুন ভূইয়ার দৃষ্টি আকর্ষন করা হলে তিনি বিষয়টি অবগত নয় ও খোঁজ-খবর নিচ্ছেন বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *