ক্যান্সারের প্রথম টিকা নিলেন ব্রিটিশ নারী কেলি পটার


cancer-treatment

পার্বত্যনিউজ ডেস্ক :
শরীরে ক্যান্সারের জীবাণু ধ্বংস করার টিকা (Cancer Vaccine) আবিষ্কার করা হয়েছে।আর জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত লন্ডনের বেকেনহামের বাসিন্দা কেলি পটার নামে ৩৫ বছরের এক নারীর শরীরে সর্ব প্রথম এই টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে। টিকাটি এখনও পরীক্ষামূলক অবস্থায় রয়েছে, পর্যায়ক্রমে ৩০ জনের শরীরে প্রয়োগ করে এর কার্যকারিতা যাচাই করা হবে।

অনেক বছর ধরে বিজ্ঞানীরা ক্যান্সারের কেমোথেরাপির বিকল্প ঔষধ আবিষ্কার করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন।অবশেষে ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা ক্যান্সারের এই টিকা আবিষ্কার করছেন যা শরীরের যে কোন জায়গায় ছড়িয়ে থাকা ক্যান্সারের জীবাণু ধ্বংস করতে সক্ষম হবে।

২০১৫ সালে জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত লন্ডনের বেকেনহামের বাসিন্দা কেলি পটারের শরীরে সর্ব প্রথম এই টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে।

কেলি যখন জরায়ু ক্যান্সার নিয়ে গাই’(Guy’s) হাসাপাতালে ভর্তি হন তখন সেটা চতুর্থ পর্যায়ে ( stage 4) ছিল এবং লিভার ও ফুসফুসের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছিল। কিন্তু নতুন এই টীকা দেওয়ার পর তিনি বলেন যে, এখন তার ক্যান্সার স্থিতিশীল পর্যায় রয়েছে এবং লিভার ও ফুসফুসের মধ্যে ছড়িয়ে পড়া বন্ধ হয়েছে। এর ফলে আমি আগের চেয়ে অনেক ভালো আছি ।

সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞানীরা বলছেন, ‘হিউম্যান টেলোমাড়েজ রিভার্স ট্রান্সক্রিপটেজ’ নামের এক ধরনের উৎসেচক বিভাজনের মাধ্যমে ক্যান্সার কোষের ক্রমাগত বংশ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এই উৎসেচকের গঠনমূলক প্রোটিনের সামান্য অংশ এই টিকাতে রাখা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে যে এই এন্টিজেনটি ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে শরীরের রক্তে প্রবেশ করালে তা ভালো কোষগুলোকে অক্ষুণ্ণ রেখে ক্ষতিকর ক্যান্সার কোষগুলোকে খুঁজে বের করে ধ্বংস করতে সক্ষম হবে।

তবে ক্যান্সার নির্মূল করতে এই টীকার পাশাপাশি কম মাত্রার কেমোথেরাপি ঔষধ দেওয়ার কথাও বলছেন এই গবেষণার প্রধান গাই’স এন্ড সেন্ট থমাস বায়োমেডিকেল রিসার্চ সেন্টারের (Guy’s and St Thomas’ Biomedical Research Centre) জেমস স্পাইসার (James Spicer)। তিনি আরো বলেন যে, শরীরে অনেক শক্ত টিউমার রয়েছে যা এই টীকা দিয়ে সম্পূর্ণ ভাবে নির্মূল করা সম্ভব নয়। তবে তিনি খুব আশাবাদী যে, এটা খুব কার্যকার হবে এবং সময়ই তা বলে দিবে।

Source: .independent.co.uk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *