parbattanews bangladesh

কেপিএম আনসার সদস্যদের মধ্যে চরম উত্তেজনা

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

কর্ণফুলী পেপার মিল  (কেপিএম) এ  জিএম এডমিন প্রশাসন কর্তৃক কর্তব্যরত আনসার সদস্য মোবাইলে কথা বলার অভিযোগে বেদম মারধর করায় আনসার সদস্যদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানাযান বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) সকালে কেপিএম এলাকায় আনসার সদস্য জাহাঙ্গীর আলম ডিউটিরত অবস্থায় একটি পোস্টে বসে কথা বলছিল এমন সময় জিএম এডমিন প্রশাসন জাহাঙ্গীর হোসেন খান ওই আনসার সদস্যকে মোবাইলে কথা বলার দায়ে তাকে শারীরিক ভাবে প্রহার করার অভিযোগ উঠে। এবং মোবাইটি ছিনিয়ে নেয়।

আনসার সদস্য এ সময় অজ্ঞান হয়ে পড়লে ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে আনসার সদস্যদের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। আনসার সদস্যকে মারার দায়ে সকল আনসার সদস্য এর প্রতিবাদে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রশাসনিক কার্যালয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং তাদের মধ্যে মিল এলাকায় চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। প্রশাসন এডমিন কর্তৃক আনসার সদস্যকে মারধর করায় ওই সদস্যকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলেও জানাযায়।

উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার শাহাদাৎ হোসেন  অভিযোগ করে বলেন, ডিউটিরত অবস্থায় কোন পোশাকধারীকে এভাবে কোন প্রশাসন মোবাইল ব্যবহারের দায়ে মারধর করতে পাড়েনা। এটি একটি বর্বরচিত হামলা বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি আরো বলেন, কেপিএম কর্তৃক লিখিত ভাবে ডিউটিরত অবস্থায় কোন আনসার সদস্য মোবাইল ব্যবহার করা যাবেনা এ ধরনের কোন লিখিত বা দিক নির্দেশনা দেয়া হয়নি বলে উল্লেখ করেন।

কেপিএম পিসি আবুদল কাদের বলেন, অনেক সময় ওই কর্মকর্তা আমাদের আনসার সদস্যকে ইতি পূর্বেও বিভিন্নভাবে নাজেহাল করার অভিযোগ করেন। পিসি জানান, আমার সদস্য কোন দোষ করে থাকলে আমাদের প্রশাসন ছিল তাকে অভিযোগ করতে পাড়ত তা না করে তিনি ডিউটিরত অবস্থায় একটি বাহিনীর ওপর অন্যায়ভাবে হামলা করেছে। আমরা তার সঠিক বিচার চাই।

এদিকে কেপিএম জিএম এডমিন জাহাঙ্গীর হোসেন খান ওই আনসার সদস্যকে কোন কিছু করা হয়নি বা তার ওপর কোন হামলাও করা হয়নি বলে জানান।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ইতি মধ্যে মিল এলাকায় এত নিরাপত্তা থাকা সত্তেও হরহামেশা প্রতিনিয়ত চুরি হচ্ছে। ওই আনসার সদস্য সকালে নিজ পোস্ট ছেড়ে অন্যত্র মোবাইলে কথা বলছিল তাই তাকে সাবধান করে দিয়ে মোবাইটি নিয়ে নেয় বলে জানান। এবং প্রশাসনের সকলে মিলে গত বুধবার নিরাপত্তা বিষয় নিয়ে এবং কোন নিরাপত্তা প্রহরী বা আনসার সদস্য ডিউটিরত অবস্থায় মোবাইল ব্যবহার করতে পাড়বেনা বলে একটি লিখিত দেয়া হয় বলেও জানান।

এদিকে  ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে আনসার সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠি-সোঠা নিয়ে মিলে আক্রমন করতে আসে এবং আনসার সদস্যদের প্রত্যাহার করে নেয় বলে জিএম এডমিন অভিযোগ করেন। ঘটনার সাথে সাথে আইনশৃঙ্কলা বাহিনী মিল এলাকায় যায়। তবে আনসার সদস্যদের মধ্যে এ নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলেও জানাযায়।