কুতুবদিয়ায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে পণ্ড


 

কুতুবদিয়া প্রতিনিধি:

কুতুবদিয়ায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এক স্কুল ছাত্রীর বাল্যবিয়ে পণ্ড হয়ে গেছে। বুধবার ( ১ নভেম্বর ) উপজেলার ধূরুং বাজারের উত্তর পাশে প্রদীপ পাড়ায় বাল্যবিবাহের আয়োজনটি করা হয়েছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রদীপ পাড়ার তপন সিকদারের ধূরুং হাই স্কুলে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে প্রিয়া সিকদার মনির (১৪) বড়ঘোপ ইউনিয়নের বাদল দাশের ছেলে চন্দন দাশের সাথে বুধবার রাতে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানো হলে তিনি পুলিশের সহায়তায় বিয়েটি বন্ধ করে দেন। প্রিয়া সিকদার নবম শ্রেণিতে পড়ে বলে ধূরুং হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোরশেদুল আলম নিশ্চিত করেন।

থানার এএসআই জাহেদুল আলম বলেন, খবর পেয়ে বিয়ে বাড়িতে গিয়ে বাল্যবিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন। পরে মেয়েটিকে স্কুলে পাঠানোর প্রতিশ্রুতি নিয়ে উপস্থিত কুতুবদিয়া সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক সন্তোষ কুমার দাশ, প্রভাষক সমীর কান্তি দাশ ও প্রধান শিক্ষক মোরশেদুল আলমসহ সংশ্লিষ্টদের জিম্মায় দেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজন চৌধুরী বাল্যবিয়ের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশ পাঠিয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দিয়েছেন বলেও জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *