কুতুবদিয়ায় জেএসসিতে শীর্ষে সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়


কুতুবদিয়া প্রতিনিধি:

সদ্য প্রকাশিত জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় আশানুরূপ ফলাফল আসেনি কুতুবদিয়ায়। কুতুবদিয়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র সচিব মাস্টার সজল দাশ জানান, জেএসসিতে ২টি কেন্দ্রে উপজেলার ৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৬০৪জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। পাশ করেছে ১২৪৯জন। পাশের হার ৭৭.৮৬। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬৪জন ছাত্র-ছাত্রী।

তবে এ ফল খারাপের মাঝে এবার পাশের হার ও জিপিএ-৫ এর হারে শীর্ষে এসেছে কুতুবদিয়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। সরকারি একমাত্র উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ( ধূরুং হাই স্কুল কেন্দ্রে) ৯৮জন পরীক্ষার্থীর মাঝে পাশ করেছে ৯১জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১জন ছাত্রী। পাশের হার ৯২.৮৫। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে কবি জসীম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়। ১৪৮জন পরীক্ষার্থীর মাঝে পাশ করেছে ১৩৬জন। পাশের হার ৯১.৮৯। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৪জন। বরাবরে ভাল অবস্থানে থাকা কুতুবদিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় এবার কিছুটা পিছিয়ে পড়েছে। ৪০৮জন পরীক্ষার্থীর মাঝে পাশ করেছে ৩৫৪জন। পাশের হার ৮৬.৭৬।  জিপিএ-৫ পেয়েছে ২২জন।

এ ছাড়া ধূরুং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩০৪জনে ২১৯জন, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭জন,  আলী আকবর ডেইল উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৪২ জনে পাশ করেছে ১৩০জন,জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮জন, লেমশীখালী উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৭৭জনে পাশ করেছে ১৬৪জন, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১জন, সতরুদ্দীন উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০৬জনে পাশ করেছে ৭৮জন, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১জন, কৈয়ারবিল আইডিয়াল হাই স্কুলে ৮২জনে পাশ করেছে ৬৬জন, উত্তরণ বিদ্যা নিকেতনে ১৩৯জনে পাশ করেছে ১০২জন।

অপর দিকে মাদ্রাসার জেডিসি পরীক্ষার ফলাফলের এবার বিপর্যয় ঘটেছে বলে স্বীকার করে বড়ঘোপ ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্র সচিব অধ্যক্ষ মাও: নুরুল আলম জানান, উপজেলার ৯টি মাদ্রাসার ৬৩৪জন শিক্ষার্থী ২০১৭ সালে জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ৪৭৭জন। পাশের হার ৭৫.২৪। গত বছর ছিল পাশের হার ৯০ শতাংশের বেশি। জিপিএি-৫ নেই কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের। তবে পাশের বিপর্যয়ের বছর শতভাগ পাশ করেছে কুতুবদিয়া জামেয়া নুরানিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা। ৩০জনে সবাই পাশ করেছে।

এ ছাড়া বড়ঘোপ ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ৭৫জনে ৬০জন, ছমদিয়া আলিম মাদ্রাসার ৭৬জনে ৫৬জন, আলী আকবর ডেইল দাখিল মাদ্রাসার ৫৮জনে ৩২জন, কুতুব আউলিয়া শামসুল উলুম দাখিল মাদ্রাসার ৫৬জনে ৪৫জন, আল ফারুক দাখিল মাদ্রাসার ১১০জনে ৯২জন, ইমাম আবু হানিফা একাডেমি দাখিল মাদ্রাসার ৪২জনে ৩৩জন, গাউছিয়া দাখিল মাদ্রাসার ১২৫জনে ৮৩জন ও দারুল হিকমাহ আল মালেকিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৬২জনে ৪৬জন পাশ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *