কুতুবদিয়ায় অস্ত্র সহ ২ জলদস্যু আটক


কুতুবদিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় বিপুল পরিমাণ দেশিয় তৈরি অস্ত্রসহ দুই জলদস্যুকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার (২১ আগস্ট)  উপজেলার দক্ষিণ ধূরুং বাতিঘর এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

থানা সূত্র জানায়, সোমবার সকাল ১১টার দিকে বাতিঘর পাড়া সৈকতে জলদস্যুরা দু’জেলেকে অপহরণপূর্বক মুক্তিপন দাবি করে জিম্মি করে রাখে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে বাঁশখালী উপজেলার ছনুয়া গ্রামের আবু সাদেক (৫৫) ও একই উপজেলার বাংলাবাজার গ্রামের মুক্তাধর জলদাশ(৩৫) কে উদ্ধার করে।

এসময় পুলিশ ধাওয়া করে দক্ষিণ ধুরুং ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের আবুল কালাম প্রকাশ আবু’র পুত্র আলী আকবর (২২) এবং একই ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড পূর্ব আলী ফকির ডেইল আশা হাজির পাড়ার জলদস্যু মামলার পলাতক আসামি আবু মুসার পুত্র পারভেজ (১৪) কে আটক করতে সক্ষম হয়।

থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদাউস বলেন, কুতুবদিয়া দ্বীপের দক্ষিণ ধুরুং ইউনিয়নের বাতিঘর পাড়া গ্রামে জলদস্যুরা মুক্তিপণ দাবিতে দুই জেলেকে অপহরণপূর্বক জিম্মি করে রাখে। এ খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে জিম্মিকৃত ২ জেলেকে উদ্ধার ও ২ জলদস্যুকে আটক করে।  এ সময় ঘটনাস্থল থেকে জলদস্যুদের ব্যবহৃত দেশিয় তৈরি দুটি বন্দুক, কিরিচ ও রামদা উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা ও জলদস্যুদের স্বীকারোক্তিতে অন্যান্য জলদস্যু আটকের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

মুক্তিপাওয়া জেলে আবু সাদেক ও মুক্তাধর সাংবাদিকদের জানান, গত শুক্রবার বিকালে বাশঁখালী উপকূল থেকে পৃথক পৃথকভাবে দুটি নৌকাসহ ১২ জেলে নিয়ে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে বঙ্গোপসাগরে গুলিরধার নামক স্থানের পাশে সাঁঙ্গু গ্যাস ফিল্ড এলাকায় যায়। সেখানে টং জাল বসিয়ে মাছ ধরারত অবস্থায় রবিবার দিবাগত রাত দুইটার সময় আট/দশ জন অস্ত্রধারী জলদস্যু ট্রলারযোগে তাদের উপর হামলা চালায়। জেলেদের নৌকার মাছসহ মূল্যবান মালামাল লুট করে উভয় নৌকার দুই মাঝিকে মুক্তি পনের জন্য অপহরণ করে কুতুবদিয়া উপকূলের বাতিঘর পাড়া এলাকার একটি ঘরে জিম্মি করে রাখে। পরে জেলেদের নৌকার মালিকের নিকট থেকে বিকাশের মাধ্যমে আলাদা আলাদাভাবে  অর্ধ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এর মধ্যে বিকাশে বিশ হাজার টাকা দেওয়ার পরও বাকি টাকার জন্য তাদেরকে জিম্মি করে রাখে। পুলিশ এখবর পেয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *