কাপ্তাই লেকে উপজাতীয় নারীকে নৌকায় তুলে গণধর্ষণ: ভিডিও ধারণ


গণধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাঙ্গামাটির কাপ্তাই হ্রদে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় তুলে এক উপজাতি নারীকে (৩৫) পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে দুই যুবক।

সোমবার বিকালে এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে দুইজনকে আসামি করে রাঙ্গামাটি কোতোয়ালি থানায় মামলা করেছেন ওই নারী।

মামলার আসামি নৌকাচালক নজরুল ইসলামকে (৩২) আটক করেছে পুলিশ। নিপু ত্রিপুরা (৩২) নামে অন্য আসামি পলাতক।

গ্রেফতারকৃত নজরুলের বাড়ি রাঙ্গামাটি শহরের রিজার্ভবাজারের পুরানপাড়ায়। পলাতক নিপু ত্রিপুরার বাড়ি রিজার্ভবাজারের আবদুল আলী একাডেমি স্কুল সংলগ্ন বস্তিপাড়ায়।

অন্যমিডিয়া

ধর্ষণের শিকার ওই নারী বলেন, তিনি তার ছেলের চিকিৎসার জন্য সোমবার ১২ হাজার টাকা নিয়ে বরকলের উজ্জ্যাংছড়ি থেকে চট্টগ্রাম যাবার উদ্দেশ্যে রিজার্ভবাজারের পাহাড়িকা বাস সার্ভিস কাউন্টারে যান। সেখানে নিপু ত্রিপুরা নিজেকে স্থানীয় জেএসএস নেতা ও কবিরাজ পরিচয় দিয়ে তাকে ভয়ভীতি দেখায়।

এক পর্যায়ে তাকে বালুখালী জেএসএস অফিসে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে রিজার্ভবাজারের লঞ্চঘাটে নিয়ে যায়। সেখান থেকে একটি ইঞ্জনচালিত নৌকায় করে তাকে কাপ্তাই হ্রদের নির্জন এলাকায় নিয়ে ভাসমান বোটে নজরুল ইসলাম ও নিপু ত্রিপুরা পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

তিনি জানান, ধর্ষণের সময় মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ নিপু হুমকি দিয়ে বলে, বিষয়টি কাউকে জানালে ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়া হবে। ধর্ষণের পর ১২ হাজার টাকাও কেড়ে নেয় নিপু ত্রিপুরা। পরে সন্ধ্যার দিকে তাকে রিজার্ভবাজার ঘাটে নামিয়ে দিয়ে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়।

রাঙ্গামাটি কোতোয়ালি থানার এসআই লিমন বোস জানান, ঘটনায় ধর্ষণের শিকার নারী বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে দুইজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেছেন। ওই নারী এখন ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রয়েছেন। রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে তার ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত নজরুলকে রিমান্ডে নেয়া হবে। অপর আসামি নিপু ত্রিপুরাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সূত্র- যুগান্তর

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *