কাউখালী ভূত আতঙ্কে স্কুল ছুটি, দু’দিনে অসুস্থ ৫শিক্ষার্থী


Kawkhali Rangamati News- botgas

কাউখালী প্রতিনিধি:
রাঙামাটির কাউখালীর পোয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ভূত আতঙ্কে দু’দিনে পাঁচ শিক্ষার্থী অসুস্থ্ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। একের পর এক ছাত্রী অসুস্থ্ হয়ে পড়ায় ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকদের চাপে শেষ পর্যন্ত স্কুল ছুটি ঘোষণা করতে বাধ্য হয়েছেন প্রধান শিক্ষক করুনাময় চাকমা।

গতকাল রবিবার ও সোমবার বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর কক্ষে এঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে স্কুল ও হাসপাতলে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী অফিসার আফিয়া আখতার।

স্কুলে গিয়ে দেখা যায়, ৮ম শ্রেণীর কক্ষের পাশে শত বছরের পুরনো একটি বট গাছ রয়েছে। ঐ বট গাছের নিচ দিয়ে হেঁটে গেলেই নাকি ছাত্রীদের ভূতে ধরে। এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে স্কুলজুড়ে আতঙ্ক দেখা দেয়। রবিবার সকালে বটগাছের নিচ দিয়ে হেঁটে শ্রেণী কক্ষে প্রবেশ করার সাথে সাথে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী সালমা সুলতানা (১৪) ও অজ্ঞাতনামা মারমা ছাত্রী । তাদের কাউখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করার পর বিকেলে তারা বাড়ি ফিরে যায়।

পরে একই ঘটনার পুণরাবৃত্তি ঘটে সোমবার সকাল ১০টায়। শ্রেণী কক্ষে ঢোকার সাথে সাথে বুকের ব্যাথা ও হাত পা খিঁচুনী দিয়ে অসুস্থ্ হয়ে পড়ে ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী আয়েশা আক্তার (১৩), আনু মারমা (১৪), মেহেরুন্নেছা মেরী (১৪)। তাদের সবাইকে কাউখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

তবে এখন পর্যন্ত কোন ছাত্র অসুস্থ্ বা কথিত ভূত দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। কেবলমাত্র ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীরাই কথিত ভূত দ্বারা আক্রান্ত হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে এ খবর চতুর্দিকে ছড়িয়ে পড়লে উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা স্কুল ও হাসপাতালে ছোটাছুটি করতে থাকেন। স্কুল জুড়ে ভূত আতংক ছড়িয়ে পড়লে আতংকিত ছাত্র-ছাত্রীরা স্কুল ছেড়ে পালাতে থাকে। প্রাথমিক পর্যায়ে আক্রান্তরা হাসপাতালের চিকিৎসায় সুস্থ্ না হওয়ায় অনেকে পাহাড়ী বৈদ্যের স্মরণাপন্ন হন। এসময় পাহাড়ী বৈদ্য আক্রান্ত ছাত্রীর অভিভাবকদের ঐ বট গাছের নিচে সাধ্যমত মুরগী, গরু ও খাসি বলি দেয়ার পরামর্শ দেন।

বৈদ্যের পরামর্শ অনুসারে অভিভাবকদের বট গাছের নিচে মুরগি বলি দিতে দেখা গেছে বলে এ প্রতিবেদককে জানান।

কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মর্তুজা রশিদ জানান, দুদিনে ৫জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তিনি জানান, এটি মানষিক সমস্যা, আতঙ্কের কারণেও এমনটা হতে পারে। তবে আক্রান্তদের সবার বুকের ব্যাথা ও হাত পায়ের খিঁচুনী লক্ষ্য করা গেছে বলে তিনি জানান।

পোয়াপাড়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক করুণাময় চাকমা জানান, স্কুলের অবকাঠামোগত উন্নয়নের কারণে বট গাছটির ডাল পালা কাটতে হয়েছে। তখন থেকেই ছাত্রীরা এমন পরিস্থিতিতে আক্রান্ত হচ্ছে। তবে কথিত ভূত শুধুমাত্র ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীদের উপর কেন আক্রমণ করে এমন প্রশ্নের উত্তর কেউ দিতে পারেনি।

ঘটনার বিষয়ে সাংবাদিকরা স্কুল শিক্ষকদের প্রশ্ন করতে গেলে স্কুল পরিচালনা কমিটির এক সদস্য সাংবাদিকদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। পরে পরিস্থিতি সামাল দিতে না পেরে সকাল সাড়ে এগারটায় স্কুল ছুটি ঘোষণা করেন প্রধান শিক্ষক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *