কর্মসৃজন প্রকল্প পাল্টিয়ে দিয়েছে উখিয়ার গ্রামীণ চিত্র


Pic Ukiya 06-08-2016 (1) copy

নিজস্ব প্রতিনিধি:

উখিয়ায় অতিদরিদ্রদের কর্মসংস্থান কর্মসূচী কর্মসৃজন প্রকল্প গ্রামীণ সড়ক সংস্কার ও অবকাঠামো উন্নয়নের ব্যাপক সফলতা অর্জন করেছে। বেকার লোকদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি পাল্টিয়ে দিয়েছে গ্রামের চিত্র। বর্তমান সরকারের কর্মসৃজন কর্মসূচী চালু হওয়ায় শত শত পরিবারে দারিদ্র বিমোচন সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মাঈন উদ্দিন।

সংশি¬ষ্ট সূত্রে জানা যায়, চলতি অর্থ বছরে ত্রাণ খাদ্য ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অধিনে উখিয়া উপজেলার ৫টি ইউনিয়নে কর্মসৃজন প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য ১ কোটি ২৫ লক্ষ ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়।

উখিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জুবাইর হাসান জানান, রত্নাপালং, জালিয়াপালং, হলদিয়াপালং, রাজাপালং ও পালংখালী এ ৫টি ইউনিয়নে ৩৫টি উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়। প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে, মাটি দ্বারা রাস্তা তৈরি, খাল খনন, ড্রেইন সংস্কার, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠ ভরাট।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কর্মসৃজন প্রকল্পের আওতায় ১ হাজার ৫শ ৬৫ জন বেকার ব্যক্তি উপকারভোগী হিসাবে সুবিধা পেয়েছে। উপকারভোগীরা মজুরি হিসাবে প্রতিদিন ২শ টাকা হারে ৪০ দিন এ সুবিধা গ্রহণ করে। প্রত্যেক উপকারভোগী সদস্যদের নামে ব্যাংকে একাউন্ট খোলা হয়েছে। ব্যাংক থেকে উপকারভোগীরা নিজেদের নামে জমা হওয়া টাকা উত্তোলন করে থাকে।

পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, অতিদরিদ্র পরিবারের অক্ষম লোকদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে বর্তমান সরকারের কর্মসৃজন প্রকল্প একটি যুগান্তকারী কর্মসূচী। এ কর্মসূচী চালু হওয়ায় এলাকার শত শত বেকার পরিবারের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে। শুধু তাই নয় উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হওয়ায় গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার সহ ব্যাপক সফলতা পেয়েছে।

উপজেলা পিআইও অফিস সূত্রে জানা যায়, কর্মসৃজন প্রকল্পের আওতায় ৫টি ইউনিয়নের ৩৫টি উন্নয়ন প্রকল্প গত ২৫ জুন শেষ হয়েছে। উক্ত প্রকল্পের হতদরিদ্র উপকারভোগী সদস্যদের মাঝে দৈনিক মজুরি হিসাবে ৪০ দিনের বরাদ্দ কৃত ১০ কোটি ২৫ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ৪ কিস্তিতে ব্যাংকের একাউন্টের মাধ্যমে বিতরণ সুষ্ঠ ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এ প্রসঙ্গে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, কর্মসৃজন প্রকল্প সুষ্ঠ ভাবে বাস্তবায়ন ও সম্পন্ন করার জন্য প্রতিটি ইউনিয়নে একটি করে কমিটি রয়েছে। সরকারী ৫ জন কর্মকর্তা ইউনিয়ন ভিত্তিক টেক অফিসার হিসাবে নিয়োগ দেওয়ায় হয়। এছাড়াও জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে কর্মকর্তারা প্রকল্পের কার্যক্রম পরিদর্শন করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *