কক্সবাজার বিমানবন্দরে নেতা-কর্মীর ভালোবাসায় সিক্ত সাংসদ কমল


নিজস্ব প্রতিবেদক, রামু:

পবিত্র ওমরাহ পালন শেষে কক্সবাজারে ফিরেছেন কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল।

সোমবার (২ জুলাই) বিকাল ৪টায় কক্সবাজার বিমানবন্দরে সাংসদ কমলের আগমনের খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান কক্সবাজার ও রামুর জনপ্রতিনিধি, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠন, ব্যবসায়ী ও সামাজিক সংগঠনের শত শত নেতা-কর্মী। সেখানে প্রিয় নেতা সাইমুম সরওয়ার কমলকে ফুলেল ভালোবাসায় সিক্ত করেন নেতৃবৃন্দ।

এ সময় সাংসদ কমল বলেন, যতদিন বেঁচে থাকবো মানুষের জন্য কাজ করে যাবো। মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পারা জীবনের সবচেয়ে বড় সফলতা।

তিনি বলেন, বিগত সাড়ে চার বছরে কক্সবাজার-রামুতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর ও রেল লাইনের কাজ শুরু হয়েছে। এসব প্রকল্পের কাজ শেষ হলে পর্যটন রাজধানী কক্সবাজার আরও প্রাণ ফিরে পাবে। উন্নয়নের কারণেই এখন কক্সবাজার-রামুর মানুষ স্বণির্ভরতা অর্জন করেছে। উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি এমন কোন প্রতিষ্ঠান বা এলাকা নেই। আগামীতে নৌকা প্রতীক জয়ী হলে এখানকার চেহারা পাল্টে যাবে।

এ সময় উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে জয়ী করার আহ্বান জানান তিনি।

বিমানবন্দরে পৌঁছলে সাংসদ কমলকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান রামু উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, রামু উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নুসরাত জাহান মুন্নী, রামু কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আবদুল হক, কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য শামসুল আলম চেয়ারম্যান ও নুরুল হক কোম্পানী, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ আহমদ মাস্টার, চাকমারকুল ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সিকদার, ফতেখাঁরকুল ইউপি চেয়ারম্যান ফরিদুল আলম, গর্জনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুচ ভূট্টো, কাউয়ারখোপ ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ, রাজারকুল ইউপি চেয়ারম্যান মুফিজুর রহমান, রশিদনগর ইউপি চেয়ারম্যান এমডি শাহ আলম, রামু চৌমহনী বণিক সমবায় সমিতি লি. এর সভাপতি অধ্যাপক রফিকুল আলম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আফসার কামাল, সহ-সভাপতি রুহুল আমিন রকি, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভূট্টো, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নীতিশ বড়ুয়া, উপজেলা যুবলীগ নেতা আবছার কামাল সিকদার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, আওয়ামী লীগ নেতা হাজী নুরুল হক, সৈয়দ মো. আবদু শুক্কুর, কাউয়ারখোপ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল হক হেলালী ও আবদুল গনি, খুনিয়াপালং ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ বিদ্যুৎ মেম্বার, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মো. সেলিম, সাংসদ কমলের একান্ত সচিব ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মিজানুর রহমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সম্পাদক আবু বক্কর ছিদ্দিক, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আজিজুল হক আজিজ, সৈনিকলীগ আহ্বায়ক মিজানুল হক রাজা, যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদুল হক বাবু, উপজেলা শ্রমিকলীগ আহ্বায়ক শফিউল আলম কাজল, ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ নোমান, বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদের সভাপতি একরামুল হাসান ইয়াছিন প্রমূখ।

এসময় কক্সবাজার ও রামু উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিকলীগ, সৈনিকলীগ, তাঁতীলীগ, বঙ্গবন্ধু ছাত্রপরিষদসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে বিকেল সাড়ে ৪টায় সাংসদ কমল কক্সবাজারের একটি অভিজাত হোটেলে জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় যোগদান করেন। রাত ৮টায় তিনি রামুর জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের উত্তর মিঠাছড়িতে সন্ত্রাসীদের ছুরিকাঘাতে নিহত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রমিজ আহমদের মরদেহ দেখার জন্য তাঁর গ্রামের বাড়িতে যান এবং জানাযায় শরিক হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *