কক্সবাজার জেলার এইচএসসি ও সমমানের মোট ফলাফল


কক্সবাজার প্রতিনিধি:

১৯ জুলাই (বৃহস্পতিবার) এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। ফলাফলে কক্সবাজারে এ বছর পাসের হার এবং জিপিএ-৫ কমেছে। আলিমে পাশের হার সামান্য বৃদ্ধি পেলেও কমেছে জিপিএ-৫। অনেক উপজেলার মাদ্রাসাতে ১জনও জিপিএ-৫ পায়নি।

এ বছরও জেলায় এইচএসসিতে ধারাবাহিকভাবে মারাত্বক ফল বিপর্যয় ঘটেছে। ফলাফল প্রকাশের পর হতবাক হয়েছে অনেক পরীক্ষার্থী। জেলার ২৩টি কলেজের মধ্যে আবারও শ্রেষ্ঠত্বের আসন ধরে রেখেছে কক্সবাজার সরকারি কলেজ। এ কলেজ থেকে ৯২২ জনে পাশ করেছে ৮৩৬ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩২জন। পাশের হার ৯০.৬৭ শতাংশ। এরমধ্যে বিজ্ঞানে ২৩জন, ব্যবসায় শিক্ষায় ৮জন এবং মানবিকে ১জন জিপিএ-৫ পেয়েছে।

জেলায় ১০৪২৩জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে ৬৪২৭জন। অকৃতকার্য হয়েছে ৩৯৭৮ জন। পাশের হার ৬১.৬৬ শতাংশ যা গত বছরের তুলনায় ৬.২৮ শতাংশ বেশি। গত বছর পাশের হার ছিল ৫৫.৩২ শতাংশ।

অতিমাত্রায় ফেসবুক আসক্তি এবং সৃজনশীল পদ্ধতির সাথে পরীক্ষার্থীদের ভীতি দুর না হওয়ায় ফল বিপর্যয়ের কারণ বলে মনে করা হচ্ছে।

গতকাল প্রকাশিত ফলাফলে জেলার ২৩ কলেজ থেকে ৪৫৩২জন ছাত্রের মধ্যে পাশ করেছে ২৭২৪জন। ছাত্রের পাশের হার ৬০.১১ শতাংশ। অপরদিকে জেলায় ৫৮৯১জন ছাত্রীর মধ্যে পাশ করেছে ৩৭০৩জন। ছাত্রীদের পাশের হার ৬২.৮৬ শতাংশ। এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় ছাত্রদের চেয়ে পাশের হারে এগিয়ে রয়েছে ছাত্রীরা।

বিভাগ ওয়ারি ফলাফল হল-কক্সবাজার সরকারি কলেজে বিজ্ঞান পাশ করেছে ৩৬৭জন, অকৃতকার্য হয়েছে ২০জন। মানবিকে পাশ ১৬০জন, ফেল ৬১জন। ব্যবসায় শিক্ষায় পাশ ৩০৯ জন ফেল ৫ জন। মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩২জন। পাশের হার ৯০.৬৭ শতাংশ।

কক্সবাজার সিটি কলেজে বিজ্ঞান পাশ করেছে ১০৩জন, ফেল ৬৪ জন, মানবিকে পাশ ২৯৪জন, ফেল ১৮৩জন, বানিজ্যে পাশ ৩৫২জন, ফেল ৫৯জন। কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজে বিজ্ঞান পাশ ১২৭জন, ৬৮জন, মানবিকে পাশ ২১২জন, ফেল ১০৯জন, বানিজ্যে পাশ ৩৫১জন, ফেল ৪০জন। কক্সবাজার হাভার্ড কলেজে বিজ্ঞান পাশ করেছে ১০জন , ফেল ২৭জন, মানবিকে পাশ ৫৩জন, ফেল ৪৮জন, বানিজ্যে পাশ ২৭জন, ফেল ১৫জন।

চকরিয়া সিটি কলেজে বিজ্ঞানে ১জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে সে অকৃতকার্য হয়েছে। মানবিকে পাশ ৪১জন, ফেল ৫৫জন, বানিজ্যে পাশ ১জন, ফেল ৭জন। বদরখালী কলেজে বিজ্ঞান পাশ মাত্র ৪ জন, ফেল ৯জন, মানবিকে পাশ ৮৭জন, ফেল ১২১জন, বানিজ্যে পাশ ২৬জন, ফেল ২০জন। চকরিয়া মহিলা কলেজে বিজ্ঞান পাশ ৪৮জন, ফেল ২২জন, মানবিকে পাশ ২৪০জন, ফেল ১০৫জন, বানিজ্যে পাশ ১৬৪জন, ফেল ৬৮জন। চকরিয়া কমার্স কলেজে পাশ করেছে ৩৭জন, ফেল ৩৭জন। হোয়ানক কলেজে বিজ্ঞান পাশ মাত্র ৭জন, ফেল ২জন, মানবিকে পাশ ২৫জন, ফেল ৪২জন, বানিজ্যে পাশ মাত্র ১৩জন, ফেল ৭জন। মহেশখালী বঙ্গবন্ধু মহিলা কলেজে বিজ্ঞান পাশ ১৫জন, ফেল ২জন, মানবিকে পাশ মাত্র ৭৫জন, ফেল ৪৪জন, বানিজ্যে পাশ ২৬জন, ফেল ৩জন।

কুতুবদিয়া কলেজে বিজ্ঞান পাশ ৩৮জন, ফেল ৪জন, মানবিকে পাশ ২৬৫জন, ফেল ১৬০জন, বানিজ্যে পাশ ৯৫জন, ফেল ২১জন। কুতুবদিয়া মহিলা কলেজে মানবিকে পাশ করেছে ৪জন, ফেল ৩০জন। ব্যবসায় শিক্ষায় পাশ ১ ও ফেল করেছে ২ জন। ঈদগাঁও ফরিদ আহমেদ কলেজে বিজ্ঞান পাশ ৫ জন, ফেল ৯ জন, মানবিকে পাশ ৯২ জন, ফেল ১৪৮ জন, বানিজ্যে পাশ ৬৬ জন, ফেল ৫৪ জন। উখিয়া বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মহিলা কলেজে বিজ্ঞানে পাশ করেছে ১ জন, ফেল ১০ জন। মানবিকে পাশ করেছে ২৬২ জন, ফেল ১৬৮ জন, বানিজ্যে পাশ ১০৫ জন, ফেল ৩৯ জন।

মহেশখালী কলেজে বিজ্ঞান পাশ করেছে ৪১ জন, ফেল ১৮ জন, মানবিকে পাশ ২৫৭ জন, ফেল ২৫৬ জন, বানিজ্যে পাশ ৭৯ জন, ফেল ৪০ জন। কক্সবাজার কমার্স কলেজে পাশ করেছে ৯৩ জন, ফেল ৬২ জন। রামু কলেজে বিজ্ঞান পাশ ১২ জন, ফেল ৩৮ জন, মানবিকে পাশ ২০৮ জন, ফেল ১১১ জন, বানিজ্যে পাশ ১৮৪ জন, ফেল ৬১ জন। পেকুয়া শহিদ জিয়াউর রহমান উপকুলীয় কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে পাশ করেছে ১১ জন, ফেল ২জন। মানবিকে পাশ ১৪৫ জন, ফেল ১১৩ জন, বানিজ্যে পাশ ৮৬ জন, ফেল ১৯ জন। টেকনাফ কলেজে বিজ্ঞানে পাশ করেছে ১ জন, ফেল ২জন। মানবিকে পাশ ৬৫ জন, ফেল ১২৭ জন, বানিজ্যে পাশ ৩২ জন, ফেল ২৬ জন। টেকনাফ মঈন উদ্দিন মেমোরিয়াল কলেজে মানবিকে পাশ ৫৬ জন, ফেল ২৯ জন, বানিজ্যে পাশ ৩১ জন, ফেল ৫জন। চকরিয়া ডিগ্রি কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে পাশ করেছে ১৫ জন, ফেল ২৪ জন, মানবিকে পাশ ৬৫ জন, ফেল ৩৩১ জন, বাণিজ্যে পাশ ১০৯ জন, ফেল ১৮২ জন। ডুলাহাজারা কলেজে বিজ্ঞান পাশ ৮৮ জন, ফেল ৩৭ জন, মানবিকে পাশ ২১৬ জন, ফেল ১০৫ জন, বাণিজ্যে পাশ ২১৯ জন, ফেল ১২৬ জন। উখিয়া কলেজে বিজ্ঞান পাশ ৪ জন, ফেল ৭ জন, মানবিকে পাশ ২১৬ জন, ফেল ১০৫ জন, বাণিজ্যে পাশ ৪৫ জন, ফেল ৮০ জন।

এদিকে ফলাফল প্রকাশের পরের দিন ২০ জুলাই থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত পরীক্ষার্থী খাতা পুণঃ নীরিক্ষনের জন্য আবেদন করতে পারবে বলে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক জানিয়েছেন। এবারের ফলাফলে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের চরম ফল বিপর্যয় হয়েছে যা শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য চরম হুমকি বলে মনে করা হচ্ছে।

আলিমে জেলায় পাশের হার ৮২.৬১%

সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজার জেলায়ও একযোগে আলিম ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। ১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার মাদ্রাসায় ফল প্রকাশিত হয় এবং বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও ফলাফল সংগ্রহ করেছেন অনেক শিক্ষার্থী।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, এবার আলিম পরীক্ষার পাশের হার ৮২.৬১%। আলিমে এবার ২ হাজার ৩৯৩ শিক্ষার্থী অংশ নেন, তার মধ্যে পাশ করেছেন ১ হাজার ৯৭৭ জন ও অকৃতকার্য হয়েছেন ৪১৬।

এবার জেলায় আলিমে জিপি-৫ পেয়েছেন মাত্র ৩ জন।

শিক্ষা অফিস সূত্র থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জেলার মাদ্রাসা সমূহের তথ্য হাশেমিয়া কামিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৮৪ জন, ফেল ২৩ জন। ইসলামিয়া মহিলা কামিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ১৬৪ জন, ফেল ৩৫ জন।

কক্সবাজার আদর্শ মহিলা কামিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ১২৭ জন, ফেল ২৩জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ জন। মাদ্রাসা-এ-তৈয়্যবিয়া তাহেরিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৪৩ জন, ফেল ৫ জন। ভারুয়াখালী দারুল উলুম আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩৭, ফেল ৩ জন।

তেতৈয়া তাফহিমুল কোরআন আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৫০ জন, ফেল ১৮ জন। আলমাছিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৮৯ জন, ফেল ২৪ জন। ছুরুতিয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩৭ জন, ফেল ৯ জন। মাছুমিয়া ইসলামিয়া সুন্নিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৭ জন, ফেল ১৫ জন। গর্জনিয়া ফয়জুল উলুম আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩৪ জন, ফেল ১ জন।

গর্জনিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ২৬ জন, ফেল ১ জন। রাজাপালং এমদাদুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ১৩৭ জন, ফেল ১০ জন। ফারিরবিল মিনহাজুল কোরআন আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ২৮ জন, ফেল ২ জন। রুমখাঁ পালং ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩০ জন সকলে। চকরিয়া আনোয়ারুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ১২৫ জন, ফেল ৪১ জন। বদরখালী মহিউচ্ছুন্নাহ ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৭৭ জন, ফেল ২৯ জন। পহরচাঁদা ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩৫ জন, ফেল ১জন।

আমজাদিয়া রফিকুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৭৪ জন, ফেল ৩০ জন। খুটাখালী তমিজিয়া ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৬৮ জন, ফেল ১২ জন। আরবিয়া মারুফিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৪১ জন, ফেল ৩ জন। হযরত ফাতিমা (রহ.) বালিকা আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৪৩ জন, ফেল ১২ জন। ধুরুং ছামাদিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩১ জন, ফেল ৩ জন। বড়ঘোপ ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৫৮ জন, ফেল ৭ জন।

পুটিবিলা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩৮ জন, ফেল ১ জন। মাতারবাড়ি মজিদিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৪৪ জন, ফেল ৪ জন। কালারমারছড়া মঈনুল ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩৯ জন সকলে। মোহাম্মদিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ২১ জন, ফেল ১ জন। শাপলাপুর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ২৭ জন, ফেল ৫ জন। হ্নীলা মৌলভী বাজার জমিরিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ২৩ জন, ফেল ২১ জন।

হ্নীলা শাহ মজিদিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ২৮ জন, ফেল ২৭ জন। রঙ্গীখালী দারুল উলুম সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৪১ জন, ফেল ২১ জন। রাজাখালী বদরুল উলুম ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৫৯ জন, ফেল ৫জন। মৌলভী বাজার ফারুকিয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩০ জন, ফেল ৩জন। ফাঁসিয়াখালী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৪৪ জন সকলে। মগনামা মাঝিরপাড়া শাহ রশিদিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৩০ জন, ফেল ২জন। উজানটিয়া এ.এস আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ১৩ জন, ফেল ১৩ জন। পেকুয়া আনোয়ারুল উলুম ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পাশ করেছেন ৫৫ জন, ফেল ৩ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *