কক্সবাজারের মহেশখালীকে ডিজিটাল আইল্যান্ড ঘোষণা


5fe35adb729abdd69315d81cc31289cd-58ffcc06b925d (1) copy

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীতে ‘ডিজিটাল আই ল্যান্ড’ প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি।

এসময় দেশের প্রত্যন্ত দ্বীপ মহেশখালি ডিজিটাল দ্বীপ হিসেবে যাত্রা শুরু করার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এই যে একটা বিচ্ছিন্ন দ্বীপ মহেশখালি, যা চিরদিন অবহেলিত ছিল, আজকে এ ডিজিটাল পদ্ধতির মাধ্যমে মূল ভূখণ্ডের সাথে এবং বিশ্বব্যাপী এ মহেশখালির একটি সংযোগ স্থাপিত হয়ে গেল।’

এসময় গণভবনে টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, বাংলাদেশে দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত আন সিওন দো, সংসদ সদস্যবৃন্দ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এবং সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে, মহেশখালি প্রান্তে আইওএম’র চিফ অব মিশন শরৎ চন্দ্র দাস এবং আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক ও সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক বক্তব্য রাখেন।

প্রায় ৩৬২ দশমিক ১৮ বর্গকিলোমিটার আয়তনের মহেশখালি দ্বীপের ৪ লাখ বাসিন্দার জন্য প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে সরকার। প্রায় ২২ কোটি ৩৫ লাখ ৮১ হাজার টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পের কাজ ২০১৮ সালের ৩০ জুনের মধ্যে শেষ হবার কথা রয়েছে।

এ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রাথমিকভাবে মহেশখালির মোট জনসংখ্যার ৩০ শতাংশ উচ্চগতির ইন্টারনেট এবং প্রযুক্তি সেবাসহ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, তথ্য ও জ্ঞান-বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় প্রবেশাধিকার বাড়বে।

কোরিয়ান টেলিকম (কেটি) প্রতিষ্ঠানের কারিগরি সহযোগিতায় প্রকল্পটি যৌথভাবে বাস্তবায়ন করছে বাংলাদেশ সরকার এবং আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম)।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *