কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে বিএনপির চেয়ারপার্সন, তৃণমূলের কর্মীদের মধ্যে ফিরে আসছে প্রাণচাঞ্চল্য


 

চকরিয়া প্রতিনিধি:

মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের হাতে গণহত্যা ও নির্যাতিত হয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ ও পরিদর্শনে চারদিনের সফরে আজ কক্সবাজার যাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

বিএনপির চেয়ারপার্সনকে স্বাগত জানাতে ও একনজর দেখতে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা জড়ো হয়ে চট্রগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে চকরিয়াস্থ রাস্তার দু’পাশে ব্যানার, ফেস্টুন, প্লেকার্ড দিয়ে সাজানো হয়েছে। তার এ আগমনে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। এতে দলীয় তৃণমূলের কর্মীদের ফিরে আসছে প্রাণচাঞ্চল্য। তিনি ইতিমধ্যে চট্টগ্রাম থেকে সড়কপথে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।

এদিকে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা, পেকুয়া ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা বিএনপি’র দলীয় নেতাকর্মীরা কক্সবাজারের প্রবেশদ্বারে চকরিয়া সীমান্ত এলাকা আজিজনগর থেকে শুরু করে খুটাখালী নতুন অফিস পর্যন্ত এলাকায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া’কে অভিবাদন ও স্বাগত জানাতে সকাল থেকে মহাসড়কের রাস্তার দু’ধারে লক্ষাধিক নেতাকর্মী ও জনতা রোদ্রের তাপ সহ্য করে অপেক্ষামান রয়েছে এক পলক দেখার জন্য।

তিনি ২০১২ সালে কক্সবাজারের বড় ট্রাজেডি রামু বৌদ্ধ মন্দির পরিদর্শনে সড়ক পথে যাওয়ার পথে চকরিয়া পৌর বাসটার্মিনালে পথসভায় ভাষণ দিয়েছিলেন। সুদীর্ঘ ৫বছর পর কক্সবাজারে সড়ক পথে বেগম খালেদা জিয়া আগমনের বার্তা শুনে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে বিরাজ করছে এক ধরণের উৎসবের আমেজ।

এ দিকে প্রিয় নেতাকে স্বাগত জানাতে চকরিয়া উপজেলা বিএনপি, পেকুয়া উপজেলা বিএনপি, পৌরসভা বিএনপি ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, শ্রমিকদল, স্বেচ্ছাসেবকদল ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির প্রভাবশালী সদস্য সাবেক মন্ত্রী আলহাজ্ব সালাহউদ্দিন আহমদ ও বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এবং চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সাবেক সাংসদ এডভোকেট হাসিনা আহমেদের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা অভিনন্দন জানিয়ে নানা শ্লোগান সম্বলিত প্লেকার্ড, বড় বড় ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে চকরিয়া পৌরশহর সহ মহাসড়ক জুড়ে হাজার হাজার জনতার ঢল নেমেছে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *