একটি ব্রিজ বদলে দিতে পারে বাটনাতলী-তিনটহরীবাসীর জীবন যাত্রা


মানিকছড়ি প্রতিনিধি:

একটি ব্রিজ বদলে দিতে পারে মানিকছড়ি উপজেলার বাটনাতলী ও তিনটহরী  এ দুই ইউনিয়নবাসীর জীবন যাত্রা। তিনটহরী-বাটনাতলী সংযোগ সড়কে আসা যাওয়ার জন্য বড়বিল খালের উপর দিয়ে পারাপার করতে হয় এলাকাবাসীর। ওই খালের উপর ব্রিজ না থাকায় দীর্ঘদিন ধরে চরম দূর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে। প্রতি বছর বর্ষা মৌসুম এলে তিনটহরী ও বাটনাতলী ইউনিয়নবাসীর দূর্ভোগ পোহাতে হয়।

গত কয়েকদিন ধরে ভারিবর্ষণের ফলে বড়বিল খালের উপর নির্মিত সাঁকোটি তলিয়ে যাওয়ায় দুপাড়ের বাসীন্দা দুই কিলোমিটার পায়ে হেঁটে তুলাবিল ঘুরে পারাপার করতে হচ্ছে।

গত কয়েকদিন ধরে ভারিবর্ষণের কারণে স্কুল কলেজ পড়ুয়া ছাত্র/ছাত্রীরা ও কোমলমতি শিশুরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পারাপার করতে হচ্ছে।

গত সোমবার এলাকাবাসীদের ভেসে যাওয়া সাঁকোটিকে পূণর্নিমাণ করতে দেখাগেছে। প্রতিবছর দুই উনিয়নের বাসিন্দারা বর্ষা এলে তাদের উৎপাদিত তরকারী গুলো সময় মতো বাজারজাত করতে পারছে না।

এলাকাবাসীরা জানান, অনেক সময় উৎপাদিত ফসল গুলো সময়মত বাজারে নিতে না পারায় কাঁচামাল গুলো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তিনটহরী ইউনিয়নের বড়বিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাটনাতলী ইউনিয়নের বড়বিল সারি পুত্র বৌদ্ধ বিহার, বড়বিল জামে মসজিদসহ গুরুত্ব পূর্ণ প্রতিষ্ঠানে প্রতিদিন পাহাড়ি-বাঙ্গালীরা আসা-যাওয়া করে থাকে এ খালের উপর দিয়ে।

বড়বিল গ্রামে কার্বারী রুইসা মারমা জানান, সম্প্রতি সময়ে খাগড়াছড়ির পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী এলাকায় পরির্দশনে আসলে এলাকাবসী ব্রিজ নির্মাণের দাবি জানান, তিনি ব্রিজ নির্মাণে আশ্বাস দেন।

এ প্রসঙ্গে ২নং বাটনাতলী ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম মোহন বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানকে অবগত করা হয়েছে, ইউপিতে বড় ধরণের বরাদ্দ তেমন না থাকায় ব্রিজ র্নিমাণ করতে পারিনি, তবে আগামী বাজেটে ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মধ্যমে বরাদ্দ আসলে ব্রিজটি র্নিমাণ করা হবে। এলাকাবাসীদের প্রাণের দাবি বড়বিল খালের উপর একটি ব্রিজ দ্রুত নির্মাণ করা হোক ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *