parbattanews bangladesh

উখিয়ায় কানাডা প্রবাসীর জায়গা প্রকাশ্যে মহড়া দিয়ে জবর দখলের অভিযোগ

 

উখিয়া প্রতিনিধি:

উখিয়ার রুমখাঁ মনির মার্কেট এলাকায় সন্ত্রাসীরা দিবালোকে অস্ত্রশস্ত্র সজ্জিত হয়ে কানাডা প্রবাসী দিদারুল আলমের ভোগদখলীয় বসত ভিটা জবর দখল করে নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার (২৩ মে) দুপুরে এ জবর দখলের ঘটনাটি ঘটেছে। প্রকাশ্যে জায়গা জবরদখলের ঘটনায় পুলিশ প্রশাসনের প্রশ্নবৃদ্ধ ভূমিকা নিয়ে এলাকার সাধারণ জনগণের মধ্যে প্রচণ্ড ক্ষোভ ও মিশ্রপ্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে জায়গার মালিক দিদারুল আলম ও তার পুরো পরিবারের সদস্যরা কানাডায় বসবাস করছে।

জানা যায়, উপজেলার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের রুমখাঁ মনির মার্কেট এলাকার মৃত হাজী আব্দুর রহিমের পুত্র দিদারুল আলম ক্রয়সূত্রে মালিক হয়ে দীর্ঘ ৩০/৩৫ বছর যাবৎ ৫৭ শতক জায়গা ভোগদখল করে আসছে। ওই জায়গায় ২টি ছোট ঘরসহ পুরোনো অসংখ্য নারিকেল, সুপারি গাছসহ নানা  ফলদ বনজ গাছ রয়েছে।

শ্বশুর ফজলুল কবির অভিযোগ করে বলেন, একই এলাকার মৃত জবর মুল্লুকের ছেলে নজির আহমদ ও মাহমুদুল হকের নেতৃত্বে অর্ধশতাধিক লাঠিয়ালবাহিনী ভারি অস্ত্র নিয়ে জামাতা কানাডা প্রবাসী দিদারুল আলমের ভোগদখলীয় অনুপ্রবেশ করে বাড়ি ভাংচুর করে গুড়িয়ে দেয়। শুধু তাই নয় ছোট বাড়িতে বসবাসরত কেয়ারটেকার ও পাহারাদারকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়।

ভগ্নিপতি ফারুখ আহম্মদ চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, একজন কানাডা প্রবাসীর দীর্ঘদিনের ভোগদখলীয় নিজস্ব জায়গা প্রকাশ্যে জবরদখলের ঘটনা খুবই দুঃখজনক। বর্তমানে এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় চরম উত্তোজনাসহ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার আশাঙ্কা দেখা দিয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, এর আগেও একাধিকবার কানাডা প্রবাসী দিদারুল আলমের ওই জায়গা জবর দখলের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় প্রতিপক্ষ গ্রুপ। জায়গা দেখা শোনায় দায়িত্ব নিয়োজিত দিদারুল আলমের শ্যালক আবছার কবিরকে সম্প্রতি একটি সাজানো মিথ্যা মামলায় আটক করে কারা অভ্যন্তরীনে নিয়ে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে মাহমুদুল হক গং প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে জায়গাটি জবরদখল করেছে বলে পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেন। ওই জায়গা নিয়ে আদালতে মামলাও রয়েছে।

কানাডা প্রবাসী দিদারুল আলম জানান, আমার এ জায়গাটি দীর্ঘ ৩০/৩৫ বছরের ভোগদখলীয়। আমার পিতা মরহুম হাজী আব্দুর রহিমের হাতে রোপনকৃত নারিকেল ও সুপারি গাছ অনেক বড় বড় হয়েছে এবং বিভিন্ন ফলদ গাছের ফল ধরছে। আমার একমাত্র সহায় সম্বল জায়গাটুকু প্রভাবশালী মহলের ইশারায় প্রতিপক্ষগং জবর দখল করে নিয়েছে। আমি বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও রাষ্ট্রের প্রতি সরজমিন তদন্তপূর্বক জবরদখলকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আকুল আবেদন করছি।