উখিয়ায় অপহরণে বাঁধা দেওয়ায় সন্ত্রাসীদের চুরিকাঘাতে এক প্রবাসী গুরুতর আহত


উখিয়া প্রতিনিধি:

উখিয়ার ভালুকিয়াপালংয়ে আপন দু’সহোদরকে অপহরণকালে বাঁধা দেওয়ায় সন্ত্রাসীরা বড় ভাই প্রবাসী সোনা মিয়া (৩০) কে চুরিকাঘাত করে প্রাণ নাশের অপচেষ্টার ঘটনা ঘটিয়েছে। আহত ব্যক্তি বর্তমানে মুমূর্ষ অবস্থায় কক্সবাজার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকগণ। ঘটনাটি ঘটেছে গত রবিবার (১৭ জুন) সন্ধ্যায় আমতলী ফেলের ছড়া গ্রামে।

জানা যায়, উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের ফেলের ছড়া গ্রামের গুরামিয়ার পুত্র খাইরুল আলম (২৫) ও নুরুল কবির (২০) এর সাথে ভাড়া নিয়ে ভালুকিয়া স্টেশনে টমটম চালক ফরিদ আলমের সাথে তর্কবিতর্ক হয়।

অভিযোগে প্রকাশ ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আব্দুল করিমের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী গ্রুপ আমতলী গ্রামে গিয়ে দু’সহোদরকে মারধর পূর্বক অপহরণের চেষ্টা চালায়। এসময় চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে এগিয়ে এসে বড়ভাই সোনামিয়া বাঁধা দিলে সন্ত্রাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে এলোপাতাড়ি চুরিকাঘাত করে। এসময় মোবাইল সেটসহ নগদ টাকা ছিনতাই করে তারা। গ্রামবাসীরা এগিয়ে এসে আহত প্রবাসী সোনামিয়াকে উদ্ধার করে কক্সবাজার হাসাপাতালে ভর্তি করে।

এলাকাবাসীরা জানান, সন্ত্রাসী ঘটনায় জড়িতরা ইয়াবা ও মাদক সেবনে আসক্ত। প্রতিনিয়ত এলাকায় বিভিন্ন প্রকার অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত।

এব্যাপারে পিতা গুরা মিয়া বাদী হয়ে গত ১৮ জুন আব্দুল করিম, জয়নাল আবেদীন, নাছির উদ্দিন, নুরুল আলম, আবছার উদ্দিন, জালাল উদ্দিন, আব্দুর রহিম ও টমটম চালক ফরিদ আলমকে বিবাদী করে উখিয়া থানায় এজাহার দায়ের করে। থানার ডিউটি অফিসার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনায় জড়িতদেরকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে।

নিউজটি উখিয়া বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *