ইসলাম গ্রহণ করায় মধ্য প্রদেশে চারজন গ্রেপ্তার


88784_1

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
শিবপুরী: ভারতের মধ্য প্রদেশে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করায় একই পরিবারের চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আদালতে তারা জানান যে স্বেচ্ছায় তারা ইসলাম গ্রহণ করেছেন। এরপরই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। মধ্য প্রদেশের আইন অনুসারে কাউকে জোর করে ইসলাম গ্রহণ করালে তাদের দুবছর পর্যন্ত সাজা হতে পারে।তাদেরকে ইসলাম গ্রহণে সহযোগিতার অভিযোগে আরো সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তুলারাম জাতব, তার পুত্র কেশব জাতব এবং তাদের আত্মীয় মাকিনরাম ও মাখুভাই জাতবকে বুধবার রাজ্যের ‘ধর্মীয় স্বাধীনতা আইনে’ গ্রেপ্তার করা হয়। এই আইনে জেলা প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে ধর্মান্তরিত হতে হয়। জেলা প্রশাসন তখনই অনুমতি দেয় যখন তারা নিশ্চিত হয় যে জোর করে ধর্মান্তর করা হয়নি।

জেলা প্রশাসনের অনুমতির পর রাজ্য প্রশাসনেরও অনুমতি নিতে হয়। কিন্তু তারা এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেননি।দোষী সাব্যস্ত হলে তাদের দুবছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে।

মঙ্গলবার জাতব পরিবার যখন জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অফিসে অ্যাফিডেভিড নিয়ে যায় যে তারা স্বেচ্ছায় ইসলাম গ্রহণ করেছে তখন হিন্দু মৌলবাদী সংগঠন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ও বজরং দলের ক্যাডারাও সেখানে মহড়া দেয়। তারা সেখানে বিক্ষোভ করে এবং স্লোগান দেয়।

এরপর জাতব পরিবারের বিরুদ্ধে তারা একটি এফআইআর দায়ের করে এবং একটি দলকে তাদের বাড়িতে পাঠায় (হুমকি দিতে)। এই দুটো সংগঠনই ক্ষমতাসীন বিজেপির অঙ্গসংগঠন।

তুলারাম জাতব দু’বছর আগেই ইসলাম গ্রহণ করলেও তা এতোদিন গোপন রেখেছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি তিনি তার ছেলে ও দুই আত্মীয়কে নিয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন। তাদের বিরুদ্ধে রাজ্যকে না জানিয়ে ইসলাম গ্রহণের অভিযোগ আনা হয়েছে।

এ ব্যাপারে প্রতিবেশী হিন্দুরা অভিযোগ তুললে বুধবার তারা জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে অ্যাফিডেভিড জমা দিতে যান এবং এরপরই গ্রেপ্তার হন। কারাগারে নিয়ে যাওয়ার সময় কেশব জাতব বলেন, ‘আমাদেরকে জোর করে ধর্মান্তরিত করা হয়নি, আমরা ইসলামের শিক্ষায় অনুপ্রাণিত হয়েছি। এটা একটা অহেতুক বিতর্ক।’

সূত্র: এনডিটিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *