ইতি চাকমার হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে বাঙালী ছাত্র পরিষদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ 


IMG_20170330_124821 copy

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

সঠিক তদন্ত পূর্বক খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের মেধাবী ছাত্রী ইতি চাকমার হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্রপরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা শাখা। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের প্রধান গেইটে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্রপরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম’র সভাপতিত্বে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্রপরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. মাঈন উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক এসএম মাসুম রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মোস্তফা কামাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক পারভেজ আহম্মেদ, দপ্তর সম্পাদক বাবু মৃদুল বড়ুয়া, প্রচার সম্পাদক শাহিন আলম, খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের সভাপতি ওমর ফারুক (ভারপ্রাপ্ত), খাগড়াছড়ি টেকনিক্যাল কলেজ  সভাপতি মো. ইব্রাহিম খলিল।

মানবন্ধনে প্রধানবক্তা  হিসেবে উপস্থিত হয়ে জেলা সিনিয়র সহ সভাপতি মো: মাঈন উদ্দীন বলেন, ‘ইতি চাকমার হত্যাকান্ডটি ঘটায় কিছু বিকৃত মানসিকতার লোক মিলে । যাদের মধ্যে পারিবারিক, ধর্মীয় অনুশাসন কিছুই নেই। তিনি আরো বলেন, ইতি চাকমা তার বোন-ভগ্নিপতির বাসায় উঠলেও , চাকরী সূত্রে ইতি চাকমার বোন দিঘিনালা থাকায় বাসায় দীর্ঘদিন শালিকা-দুলাভাই একঘরেই বসবাস করে আসছিল। ঘটনার পর জানা যায় যে, সে বাসায় প্রায়ই  ইতি চাকমার দুলাভাইযের বন্ধুবান্ধব মিলে আড্ডা করতেন এবং ইতি চাকমার হত্যাকান্ডের দিনও সেখানে দুলাভাইয়ের  এক বন্ধুকে পাওয়া যায়।হত্যাকান্ডে সাথে জড়িত সন্দেহে যাকে  পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

ইতি চাকমার হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তাহলে আমার বোন ইতি চাকমা তার আপন ভগ্নিপতির কাছেও কি  নিরাপদ নয়? হত্যাকারী যেই হোক সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত দোষী বিচারের আওতায় আনতে হবে। এই সকল ঘটনা গুলোকে  কয়েকটি উগ্র-সাম্প্র্রদায়িক গোষ্টি বিচারের নামে সাম্প্রদায়িক ইস্যু সৃষ্টি করার যে অপপ্রসায় চালাচ্ছেন তার প্রতি প্রশাসনসহ সকলের সতর্কতা কামনা করেন। এই ঘটনা গুলোকে নিয়ে অতিরিক্ত বাড়াবাড়ি না করার আহবান জানান’।

17668578_1822553114666132_459488376_o

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা সাধারণ সম্পাদক এস এম মাসুম রানা বলেন, আজ পাহাড়ে উপজাতি- বাঙালি নারীরা  যেমন নিরাপদ নয়, তেমনী সমতলে ও কিছু দুষ্কৃতিকারীর  অসৎ মানসিকতার কাছে প্রতিনিয়ত লাঞ্চিত হচ্ছে আমার মা বোনেরা।  তিনি মেধাবী ছাত্রী ইতি চাকমার প্রকৃত খুনিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন। মানিকছড়ি আমেনা বেগম গনধর্ষণকারীদের বিচার সহ সকল ধর্ষন ও নারী নির্যাতনের বিচার চান।

বিশেষ বক্তা জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মো: মোস্তফা কামাল বলেন, ‘ইতি চাকমা তার দুলাভাইয়ের লালসার বলি, বান্দরবানে চিংসা অং মারমার হাতে তার নাতনী ধর্ষিত , বান্দরবানে নিথেন  চাকমার হাতে ৬ বছরের শিশু ধর্ষিত। দিঘীনালায় চার বছরের শিশুকে ধর্ষনকারী উপজাতি সন্ত্রাসীদের বিচার না হওয়ায় আজ আমাদের মা বোনরা  কোথাও নিরাপদে চলাচল করতে পারে না’।

প্রতিবাদ সমাবেশে ইতি চাকমার সহপাঠিসহ বক্তারা বলেন, হত্যাকারী যেই হোক সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত দোষীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। কিছুদিন আগে মানিকছড়ির আমেনা বেগমের ধর্ষণকারীদের বিচারসহ সকল ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিচার চান বক্তারা।

তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে কারা সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করে আজকের এই সমাবেশ তা বলে দিচ্ছে। একজন পাহাড়ী বোনের ধর্ষণের বিচার চেয়ে আজ বাঙালী সংগঠনগুলো মাঠে নেমেছে। কিন্তু পার্বত্য চট্টগ্রামে একটি ঘটনাও পাওয়া যাবে না যেখানে বাঙালী নির্যাতনের বিচার চেয়ে ইউপিডিএফ, জেএসএস সমাবেশ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *