আলীকদমে আ’লীগ কার্যালয়ে আগুন : উপজেলা চেয়ারম্যানসহ অজ্ঞাতনামা অর্ধশতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা


Al Office Faire News Pic_2 Alikadam_Bandarban.doc

মমতাজ উদ্দিন আহমদ, আলীকদম (বান্দরবান) প্রতিনিধি:

সোমবার দিনগত মঙ্গলবার রাত সোয়া তিনটার সময় বান্দরবান জেলার আলীকদম উপজেলা আওয়ামীলীগ অফিসে দুর্বৃত্তরা অগ্নিসংযোগ করেছে। এ ঘটনায় উপজেলা চেয়ারম্যান ও সদ্য ঘোষিত বিএনপির সভাপতি মোঃ আবুল কালাম ও যুবদলের আবুল হাশেমকে আসামী করে উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক দুংড়ি মং মার্মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। মামলায় আরো অজ্ঞাতনামা অর্ধশতাধিক লোককে অভিযুক্ত করা হয়েছে। দলীয় কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগকে পরিকল্পিত দাবী করে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অংগ-সহযোগি সংগঠন উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রেসক্লাব চত্ত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। সমাবেশ শেষে মিছিল নিয়ে থানায় অভিযোগপত্র পেশ করা হয়।

পুলিশ ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে,  মঙ্গলবার রাত সোয়া তিনটার সময় আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে পেট্রোল-অকটেন ঢেলে আগুন লাগায় দুর্বৃত্তরা। এ সময় কার্যালয়ের ভেতরে দলীয় গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র ও বেশ কিছু ডিজিটাল ব্যানার-পেস্টুন পুড়ে যায়। বাজারের নৈশ প্রহরীরা আগুন দেখতে পায়। আলীকদম বাজারের নৈশপ্রহরী মোহাম্মদ ইসা বলেন, আমি আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের ভেতরে হঠাৎ আগুন দেখতে পেয়ে ডাক চিৎকার শুরু করি। পরে দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে আরো কয়েকজনের সহায়তায় আগুন নিভাতে সক্ষম হই।

থানায় প্রদত্ত উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক দুংড়িমং মার্মা বলেন, গত ১৬ নভেম্বর আলীকদম প্রেসক্লাব চত্ত্বরে ১৮ দলের সমাবেশে উপজেলা বিএনপির নবনিযুক্ত সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আওয়ামীলীগ অফিস নির্মাণ নিয়ে কটুক্তিপূর্ণ বক্তব্য রাখেন। এ সময় তিনি দলীয় কার্যালয় ভাংচুর ও নেতাকর্মীদের বাড়িঘর ভেঙ্গে আগুনে পুড়ানোর প্রকাশ্য হুমকি দেন। দুংড়ি মং মার্মা অভিযোগ করেন, তার (উপজেলা চেয়ারম্যান) হুকুমেই বিএনপির উগ্রপন্থিরা আগুন লাগিয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা নং- ০২, তারিখ ১৯/১১/২০১৩ ইং রুজু হয়েছে।

এ ঘটনায় আওয়ামীলীগ ও অংগ-সহযোগি সংগঠনের উদ্যোগে মঙ্গলবার উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রেসক্লাব চত্ত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি নাছির উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মোজাম্মেল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক দুংড়ি মং মার্মা, যুগ্ম সম্পাদক কামরুল হাসান টিপু, সাংগঠনিক সম্পাদক সমর রঞ্জন বড়ুয়া ও ওলামালীগ সভাপতি বেলাল উদ্দিন সিরাজী।

বাজারের নাইট গার্ড মোহাম্মদ ইসা বলেন, আমি আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের ভেতরে হঠাৎ আগুন দেখতে পেয়ে ডাক চিৎকার শুরু করে দরজা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকি। পরে আরো কয়েকজনের সহায়তায় আগুন নিভাতে সক্ষম হই।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক দুংড়িমং মার্মা বলেন, গত ১৭ নভেম্বর আলীকদম প্রেসক্লাব চত্ত্বরে ১৮ দলের সমাবেশে উপজেলা বিএনপির নবনিযুক্ত সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আওয়ামীলীগ অফিস নির্মাণ নিয়ে কটুক্তিপূর্ণ বক্তব্য রাখেন। এর জেরে ধরে বিএনপির উগ্রপন্থিরা আগুন লাগিয়েছে বলে তারা ধারণা করছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামীলীগ অংগ ও সহযোগি সংগঠনের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার বিক্ষোভ মিছিল ও প্রেসক্লাব চত্ত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশ করবে। পাশাপাশি বিএনপির দুষ্কৃতিকারীদের অভিযুক্ত করে থানায় অচিরেই অভিযোগপত্র দায়ের করা হবে।

অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হামিদ বলেন, বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতি করেনা। বিএনপির কেউ আগুন লাগানোর মতো হীনকাজে জড়িত নয়। আলীকদমে বিএনপির গতিশীলতা নষ্ট করার জন্য উদ্দেশ্যমূলক অভিযোগ করা হচ্ছে।

জানতে চাইলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হোসাইন বলেন, টহল পুলিশের মাধ্যমে খবর পেয়ে আমি রাত সাড়ে তিনটার ঘটনাস্থলে পৌঁছি। এ ঘটনায় দোষীদের সনাক্তে তদন্ত চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *