উপজাতিরা জাতিসংঘের কাছে আবেদন করেছে পার্বত্য চট্টগ্রামকে আলাদা রাষ্ট্র করতে- হেফাজতে ইসলাম


ডেস্ক রিপোর্ট

ঢাকা মহানগরের সভাপতি নূর হোসাইন কাসেমী, ছবি: ফোকাস বাংলাপার্বত্য চটগ্রাম নিয়ে ষড়যন্ত্র চলছে বলে মন্তব্য করেছেন হেফাজতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির ও ঢাকা মহানগরের সভাপতি নূর হোসাইন কাসেমী। শুক্রবার (১৩ এপ্রিল) জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে ঢাকা মহানগর হেফাজত আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন। আফগানিস্তানে হত্যার প্রতিবাদে এ কর্মসূচি পালন করে হেফাজত।

নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, ‘এদেশের স্বাধীনতা-সাভৌমত্ব রক্ষার জন্য তৌহিদি জনতা প্রস্তুত রয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রামকে বাংলাদেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করার ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন হতে দেওয়া যাবে না। রোহিঙ্গা মুসলমানদের নাগরিকত্ব, নিরাপত্তা দিয়ে নিজ বাসভূমিতে ফেরত পাঠাতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘রাশিয়ার পতনের পরে যুক্তরাষ্ট্র একের পর এক মুসলিম রাষ্ট্রে হামলা চালাচ্ছে। আর সন্ত্রাসের অপবাদ মুসলমানদের ঘাড়ে চাপাচ্ছে। ইসলাম শান্তি ও কল্যাণের ধর্ম, ইসলাম কখনও সন্ত্রাস অনুমোদন করে না। যুক্তরাষ্ট্র রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে সন্ত্রাস প্রতিষ্ঠা করছে। তাদের অনতিবিলম্বে আফগানিস্তান ছেড়ে যেতে হবে।’

হেফাজতের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক বলেন, ‘পার্বত্য চট্টগ্রামকে বিচ্ছিন্ন করার ষড়যন্ত্র চলছে। পার্বত্য চট্টগ্রামের উপজাতিরা জাতিসংঘের কাছে আবেদন করেছে পার্বত্য চট্টগ্রামকে আলাদা রাষ্ট্র করতে। আমরা পরিষ্কার করে বলতে চাই, বাংলাদেশের এক ইঞ্চি মাটিও কাউকে দেবো না।’

হেফাজতের ঢাকা মহানগরের সহ-সভাপতি জুনায়েদ আল হাবীব বলেন,‘রোহিঙ্গারা যদি টেকনাফে থাকে তাহলে মিয়ানমার নিরাপদ হয় না। তাদের যদি ভাসানচরে পাঠানো হয় তাহলে মিয়ানমার নিরাপদ হয়। ষড়যন্ত্র আমরা বুঝি। ভাসানচরে তাদেরকে (রোহিঙ্গা) নিয়ে, উপজাতি দিয়ে খ্রিস্টান রাষ্ট্র করার প্রস্তাব যারা করেছেন, পরিষ্কার ভাষায় বলতে চাই, উপজাতিরা যেখানে থাকে, বাংলাদেশের নাগরিকেরা পার্বত্য চট্টগ্রামের ওপর দিয়ে হেঁটে গেলে একটা উপজাতিও বাঁচতে পারবে না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *