আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে লংগদু সেনাজোনের বর্ণিল আয়োজন


লংগদু  প্রতিনিধি:

২১ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০১৮ উপলক্ষে লংগদু উপজেলার সেনা জোনের উদ্যোগে বর্ণিল কর্মসূচি আয়োজন করা হয়।

এসব কর্মসূচির মধ্যে ছিলো দিনের শুরুতেই জোনের উদ্যোগে উপজেলা সদরে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপিং নির্ণয় কর্মসূচি। এতে জোনের আরএমও ক্যাপ্টেন রুবেল আজাদের নেতৃত্বে ২৩৭জনকে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপিং নির্ণয় করা হয়। জোনের মেডিকেল সহকারী লেন্স কর্পোরাল নজরুল ইসলাম, লংগদু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ল্যাব টেকনেশিয়ান আব্দুল মতিন ও আব্দুস সালাম একাজে বিশেষভাবে সহযোগিতা করেন।

অপরদিকে, মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-১৮ উপলক্ষে লংগদু সেনাজোনের আওতাধীন বাঘাইছড়ি-লংগদু সীমান্ত দূর্গম পাহাড়ি এলাকার ঐতিহ্যবাহী খেদারমারা উচ্চ বিদ্যালয়ে মহান ভাষা দিবস উপলক্ষে উপস্থিত বক্তিতা, রচনা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এসময় বিদ্যালয়ের আটশত পঞ্চাশ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে সাতশত শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলো। নানান অনুষ্ঠান আয়োজনের ফলে বিদ্যালয়ের সকল ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে উৎসবমূখর পরিবেশ তৈরি হয়। উপস্থিত বক্তিতায় পঞ্চশ শ্রেণীর ছাত্র নেপোলিয়ন চাকমা, রচনা প্রতিযোগিতায় নবম শ্রেণীর ছাত্রী বর্ষা চাকমা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায়  সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র সৌরভ চাকমা প্রথম হয়।

শেষে বিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনোরঞ্জন চাকমার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, লংগদু সেনা জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল আঃ আলীম চৌধুরী এসজিপি,পিএসসি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, খেদারমারা ইউপি চেয়ারম্যান সন্তোষ কুমার চাকমা, কালাপাকুজ্জা ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা মিয়া। এছাড়া বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক, এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিগণও এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি জোন কমান্ডার প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করেন। এছাড়া এসব প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণকারী সকল ছাত্র ছাত্রীদেরকেও জোনের পক্ষ থেকে পুরস্কার প্রদান করা হয়। অপরদিকে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকেও বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

এই ধরনের একটি ব্যতিক্রমধর্মী অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পেরে বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীবৃন্দ ও স্থানীয় জনসাধারণ দারুন খুশি। জাতীয় চেতনাবোধ বিকাশে বারবার এই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করার জন্য বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ লংগদু জোন কমান্ডারের নিকট বারবার অনুরোধ জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *