আদিবাসীরাও মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে ছিলেন: মাউসাং মারমা


রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলায় মহিলা ফোরাম সভানেত্রী ও উপজেলায় পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাউসাং মারমা বলেন পূর্বে থেকে আদিবাসীরা ছিল বলেই ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করতে পেরেছে। আজ আমরা গর্ববোধ করে বলতে পারি, কেন আদিবাসী বলে পরিচয় দিতে পারব না?  আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস হিসেবে জাতিসংঘ ঘোষণাপত্রের এক দশক পুর্ণ হয়েছে। তা আমরা আদিবাসী অধিকার বিষয়ক জাতিসংঘ ঘোষণা বাস্তবায়ন চাই। রোয়াংছড়ি উপজেলায় আদিবাসী ফোরাম কর্তৃক আয়োজিত আদিবাসী দিবস উপলক্ষ্যে নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে প্রথমে রোয়াংছড়ি কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহারের সংলগ্ন প্রাঙ্গন থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে মিলিত হয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় অনুষ্ঠিত আদিবাসী দিবস কর্মসূচি পালন অনুষ্ঠানে ৩৪৯নং ঘেরাউ মৌজ হেডম্যান শৈসাঅং মারমা সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাউসাং মারমা।

বিশেষ অতিথি হিসিবে উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান ক্যসাইনু মারমা, রোয়াংছড়ি সদর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান অংশৈমং মারমা,আলেক্ষ্যং ইউপির চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা,আলেক্ষ্যং ইউপির ৯নং ওয়ার্ডে মেম্বার ভারতসেন তঞ্চঙ্গ্যা এবং প্রধান আলোচক হিসেবে ছিলেন বান্দরবান জেলা প্রথম আলো সাংবাদিক বুদ্ধজ্যোতি চাকমা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *