অভাব অনটনে বিমান বাহিনীর সাবেক সার্জেন্ট প্রয়াত তপেশ দেওয়ানের পরিবার


নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সাবেক সার্জেন্ট তপেশ দেওয়ানের অকাল মৃত্যুর পর তার পরিবার চরম আর্থিক সংকটে দিন পার করছে। সামান্য রেশন, মেডিকেল ও বিধবা ভাতা দিয়ে সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন তপেশ দেওয়ানের বিধবা স্ত্রী কাঞ্চনা চাকমা। ছেলের লেখাপড়া খরচ বহন করা কাঞ্চনা চাকমার জন্য দু:সাধ্য হয়ে পড়েছে। জরাজীর্ণ বাড়ীটি একটু বৃষ্টি হলেই পানিতে একাকার হয়ে যায়। খাগড়াছড়ির ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে তপেশ দেওয়ানের অবিস্মরণীয় অবদান থাকলেও স্বীকৃতি পায়নি তার পরিবার।

সাদা মনের মানুষ ছিলেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সাবেক সার্জেন্ট তপেশ দেওয়ান। তার সার্ভিস নম্বর ছিল- বিডি/৪৫৮৭২১। মিশুক প্রকৃতির তপেশ দেওয়ান সহজেই সকলের মন জয় করে নিতে পারতেন। ছিলেন উদার প্রকৃতির। সংগীত ও ফুটবল ছিল তার প্রিয়।

পারিবারিক সূত্র জানায়, খাগড়াছড়ি শহরের মিলনপুরের বাসিন্দা বিমান বাহিনীর সার্জেন্ট তপেশ দেওয়ান ২০০১ সালে অবসর নেন। পরে তিনি সংগীত ও ফুটবলে মনোনিবেশ করে। অবসরের পর দুই সন্তানের জনক তপেশ দেওয়ান সংগীত প্রশিক্ষক ও ফুটবলের রেফারি হিসেবে যা পেতেন তা দিয়ে সংসার চালাতেন। এরই মধ্যে মেয়েকে বিয়ে দেন। ছেলে আদিত্য দেওয়ান বর্তমানে খাগড়াছড়ি নতুন কুঁড়ি ক্যান্টনমেন্ট স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়ছে।

কাঞ্চনা চাকমা জানান, ২০১৬ সালের ৭ ফেব্রুয়ারী রাতে তার স্বামী তপেশ দেওয়া হৃদরোগে আক্রান্ত হন। হাসপাতালে নেওয়া হলে তপেশ দেওয়ান চলে যান না ফেরার দেশে।

কাঞ্চনা চাকমা জানান, স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে তিনি প্রতিমাসে পেনশন, মেডিকেল, রেশন বাবদ ৬ হাজার ৭ শত টাকা ও বছরে বিধবা ভাতা পান ৬ হাজার টাকা। যা দিয়ে ছেলের লেখাপড়া ও সংসার চালাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। স্বামীর মৃত্যুর পর অর্থের অভবে বাড়ীটিও আর মেরামত করা সম্ভব হয়নি। একটু বৃষ্টি আসলে পানিতে একাকার হয়ে যায় পুরো বাড়ী। একমাত্র ছেলেকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে সকলের সহযোগিতা চান বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সাবেক সার্জেন্ট তপেশ দেওয়ানের বিধবা স্ত্রী কাঞ্চনা চাকমা।

খাগড়াছড়ি জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সহসাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নুরুল আজম বলেন, আশি-নব্বই দশকের দিকে খাগড়াছড়ির ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে তপেশ দেওয়ানের অবদান ছিল অবিস্মরণীয়। কিন্তু তার মৃত্যুর পর পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন ছাড়া আর কোন স্বীকৃতি পায়নি তার পরিবার।

তাই আপনার আমার সামান্য সাহায্য বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সাবেক সার্জেন্ট তপেশ দেওয়ানের পরিবারকে বাঁচার স্বপ্ন দেখাতে পারে। যারা অসহায় পরিবারের প্রতি সাহায্যের হাত প্রসারিত করতে চান, নিচের ঠিকানায় যোগাযোগ করতে পারেন।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা: কাঞ্চনা চাকমা, সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর-১০০১৮৬৮৫৪, সোনালী ব্যাংক, খাগড়াছড়ি শাখা। মোবাইল নম্বর-০১৫৫৩-৩২৫৪০৭।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *