অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে খাগড়াছড়িতে যৌথ বাহিনীর চিরুনী শুরু



নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে ও এলাকায় শান্তি প্রতিষ্ঠায় রবিবার বিকাল থেকে খাগড়াছড়িতে যৌথ চিরুনী অভিযান শুরু হয়েছে।

রবিবার (১৯ আগস্ট) বিকাল থেকে জেলার সম্ভাব্য সন্ত্রাসীদের আস্তানাগুলো টার্গেট করে সেনাবাহিনী, বিজিবি ও পুলিশের সহস্রাধিক সদস্য এ অভিযানে অংশ নিচ্ছে। আধিপত্য বিস্তারের জেরে গেল শনিবার সকালে খাগড়াছড়িতে স্বনির্ভর বাজারে বিবদমান দুই পাহাড়ি গ্রুপের মধ্যে ঘন্টাব্যাপী বন্দুক যুদ্ধে ৬জন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়।

খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার আলী আহমদ খান জানান, আগামী ২৬ আগস্ট পর্যন্ত এ অভিযান চলার কথা রয়েছে। তবে যতদিন সন্ত্রাস নির্মুল করা সম্ভব হবে না ততদিন অভিযান অব্যাহত থাকবে। এদিকে শনিবারে হতাহতের ঘটনায় এখনো কোন পক্ষ মামলা করেনি। শেষ পর্যন্ত কোন পক্ষ মামলা না করলে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবেন বলেও তিনি জানান।

এদিকে ময়না তদন্তের পর ইউপিডিএফ(প্রসীত) গ্রুপ সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি সভাপতি তপন চাকমা, এল্টন চাকমা ও গণতান্ত্রিক যুবফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা সহ-সভাপতি পলাশ চাকমার লাশ রবিবার বিকালে হস্তান্তর করা হয়েছে।

খাগড়াছড়িতে পাহাড়ি দুই সন্ত্রাসী গ্রুপের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো: ইউসুফ আলীকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। কমিটিকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

নিউজটি Uncategorized বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *