অবশেষে পুরনো কমিটি বিলুপ্ত করে পেকুয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের নতুন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা


পেকুয়া প্রতিনিধি:

দীর্ঘ ৬ বছর পর অবশেষে তিন ‘আহছান উল্লাহ’র কবলে পড়েছে পেকুয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদল! তথ্যসূত্রে জানা যায় উপজেলা ছাত্রদলের তৎকালিন সহসভাপতি ইঞ্জিনিয়ার সাইফুল ইসলামকে আহ্বায়ক, সালাহউদ্দিন, নুরুল আবসারকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষনা করেছিল জেলা নেতৃবৃন্দরা।

কিন্তু দায়িত্ব গ্রহণের ৩ মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ ওয়ার্ড থেকে ইউনিয়ন কমিটি পর্যন্ত করে উপজেলা কমিটি দেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়ার তাগেদা দিয়েছিল। ভাগ্য খারাপ সাইফুল ইসলামের নেতৃতাধীন আহ্বায়ক কমিটি ব্যর্থ হয়ে যায়। দীর্ঘ ৬টি বছর তারা কোন কমিটি করতে পারেনি। কাগজে ছিল বেশী নেতা নামে ছিল তিন জন আর বাকী সদস্যরা কোথায় ছিল তার কোন হদিস ছিল না এমন অভিযোগ সাধারণ নেতাকর্মীদের। জন্ম বার্ষিকী থেকে শুরু করে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাদের এ তিন সদস্যদেরকেই দেখা যেত।

শেষ পর্যন্ত কক্সবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতৃবৃন্দরা সাইফুল ইসলামের নেতৃতাধীন আহ্বায়ক কমিটি ব্যর্থতার দায়ভার নিয়ে কক্সবাজারের শ্রেষ্ট সন্তান পেকুয়া উপজেলার প্রতিষ্টাতা সাবেক যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী ও বর্তমান কেন্দ্রীয় বি এন পির স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব সালাহ উদ্দিন আহমদের নির্দেশনায় পেকুয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলকে সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে কক্সবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতৃবৃন্দরা পেকুয়া উপজেলা বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের পরামর্শক্রমে পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে। বিলুপ্ত ঘোষনার পর থেকে বি এন পি, যুবদল, ছাত্রদলসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মাঝে জল্পনা কল্পনা শুরু হয় কে হচ্ছেন স্বেচ্চাসেবকদলের আহ্বায়ক এবং কারা হচ্ছেন এ কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক এবং সদস্য।

অবশেষে গত ৩০ সেপ্টেম্বর বিকালে কবির আহমদ চৌধুরীর বাজারস্থ পেকুয়া কো-অপারেটিভ সমবায় কমিউনিটি সেন্টারে পেকুয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন পেকুয়া উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহসভাপতি আহছান উল্লাহ। সাবেক ছাত্রনেতা আহছান উল্লাহ খোকনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পেকুয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও পেকুয়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম. বাহাদুর শাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন পেকুয়া উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক ইকবাল হোছাইন, প্রধান বক্তা ছিলেন কক্সবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি অধ্যাপক আজিজুর রহমান।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পেকুয়া উপজেলা যুবদলের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাফায়াত আজিজ রাজু, কক্সবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট ই্উনুছ, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মীর মোশারফ হোসেন টিটু, যুগ্ম সম্পাদক আবছার কামাল, পেকুয়া উপজেলা শ্রমিকদলের সভাপতি মুজিবুল হক চৌধুরী, উপজেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ইউসুফ রোবেল, জাতীয়তাবাদী মহিলাদলের সভানেত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ঝিনু, চকরিয়া পৌর স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি এইচএম নুরুল আমিন, চকরিয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারন সম্পাদক মহিউদ্দিন পুতু, পেকুয়া উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি কামরান জাদীদ মুকুট, সাংগঠনিক সম্পাদক আকিক মামুনসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদল গঠিত হয়েছে অধিকাংশ ছাত্রদল নেতাদের নিয়ে। যাকে আহ্বায়ক করা হয়েছে তিনি ইতিমধ্যে উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি। সংগঠনের গঠনতন্ত্র মোতাবেক এক নেতা দুটি সংগঠনের উচ্চপদস্থ হতে পারে না। কিন্তু তারই ব্যতিক্রম পেকুয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের। যাকে আহ্বায়ক করা হয়েছে তাকে উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দেয়নি এখনো। এটি সংগঠনের গঠনতন্ত্র পন্থি। নেতাকর্মীদের অভিযোগ ছাত্রদল এখনো সুসংগঠিত হতে পারেনি। তার মধ্যে থেকে সিনিয়র সহ সভাপতি দলের আরেকটি অঙ্গ সংগঠনের আহ্বায়ক হওয়ায় ছাত্রদলের একটি অংশ স্বেচ্ছাসেবক দলে অন্তভুক্ত হয়েছে। নেতাকর্মীদের ধারণা আহাছান উল্লাহ গ্রুপ পুরোটা স্বেচ্ছাসেবকদলে এসেছে। সদ্য বিবাহ করায় উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি হতে না পেরে ক্ষুদ্ধ হয়ে শেষ পর্যন্ত এ স্বেচ্ছাসেবকদলের আহবায়কের দায়িত্ব নেয়।

নাম প্রকাশ অনিচ্ছুক নেতাকর্মীরা আরো জানান, সাবেক আহ্বায়ক কমিটির আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার সাইফুল ইসলাম বর্তমান কমিটিতে স্থান পায়নি। গত ইউপি নির্বাচনে পরাজয় তার এ বারের কমিটিতে স্থান পাওয়ার একমাত্র কাল হয়ে দাঁড়ায়। তার কমিটির অন্যান্যরা আসলেও সে আসেনি। উপজেলা বি এন পির এক শীর্ষ নেতার কারণে ইউপি নির্বাচনে পরাজয় হয় তার। যাই হোক বর্তমান আহ্বায়ক কমিটি কিভাবে পেকুয়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলকে নতুন ভাবে সাজাতে পারে সেটি দেখার অপেক্ষায় জেলা স্থানীয় নেতৃবৃন্দসহ সাধারণ নেতাকর্মীরা। আবার অনেকই বলেন তাকে দায়িত্ব দেওয়ায় দলের চাঙ্গা ভাব আসতে পারে। সেও নাকি আগের মত ব্যর্থতার ভার নিয়ে স্বেচ্ছাসেবকদলের আহ্বায়কের পদ থেকে বিদায় বরণ করতে হবে!

এ সব বিষয় জানতে পেকুয়া উপজেলা বি এন পির সভাপতি ও সদর ইউপির চেয়ারম্যান বাহাদুর শাহের সাথে যোগাযোগ করার জন্য ওনার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারে বেশ কয়েক বার কল দিলেও সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *