অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দুরছড়ি বাজার পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণ করেছেন চট্টগ্রামের জিওসি


dsc00105-9999999

নিজস্ব প্রতিনিধি :

বাঘাইছড়ি উপজেলার দুরছড়ি বাজারে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ক্ষতি- গ্রস্তদের দেখতে গেলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি জাহাঙ্গীর কবির তালুকদার ও রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মানজারুল মান্নান। উভয়ই আলাদাভাবে দুরছড়ি বাজারে পৌঁছেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত বাজার ঘুরে ঘুরে দেখেন। এসময় তারা ক্ষতিগ্রস্তদের সাথে কথা বলে বিভিন্ন খোঁজ খবর নেন।

জানা গেছে, শুক্রবার লংগদু সেনা জোনের উদ্যোগে বাঘাইছড়ি উপজেলায় সংঘঠিত এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত দুরছড়ি বাজার পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চট্টগ্রামস্থ ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি জাহাঙ্গির কবির তালুকদার। তিনি দুরছড়ি বাজারে অগ্নিদুর্গত এলাকা ঘুরে দেখেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজ খবর নেন। এরপর তিনি ক্ষতিগ্রস্ত দুইশত পঞ্চাশ পরিবারের মাঝে ১০ কেজি হারে চাউল, তেল, লবণ, পেয়াজ, আলু, সব মিলে প্রায় দুই লক্ষ টাকা মুল্যের ত্রাণ বিতরণ করেন।

এছাড়া লংগদু জোনের উদ্যোগে অগ্নি ক্ষতিগ্রস্তদেরকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়েছে।


এ অগ্নিকাণ্ডের বিস্তারিত খবর পড়তে পড়ুন:

রহস্যজনক অগ্নিকাণ্ডে বাঘাইছড়ির আড়াইশ স্থাপনা ছাই: নিহত ১, ক্ষতি ৩০ কোটি টাকা


২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি জাহাঙ্গির কবির তালুকদার ত্রাণ বিতরণ কালে ক্ষতিগ্রস্তদের উদ্দেশ্যে বলেন, অগ্নি দূর্ঘটনা যাতে বারবার না ঘটে তার জন্য পরিকল্পনা করতে হবে। এবং সে পরিকল্পনা অনুযায়ী স্থাপনা তৈরী করা হলে ও সচেতন থাকলে ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ অনেক কম হবে। সেনবাহিনীর পক্ষে যতটুকু সম্ভব সব ধরণের সহযোগিতা দিয়ে যাব।

এসময় খাগড়াছড়ি ২০৩ পদাতিক বিগ্রেডের কমান্ডার ব্রি. জে. স. ম. মাহাবুব উল আলম, লংগদু সেনা জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল আব্দুল আলীম চৌধুরী, রাজনগর বিজিবি জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল তারেক বে-নজীর আহম্মেদ, লংগদু জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর গোলাম আজমসহ বিভিন্ন সেনা কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, অগ্নিকান্ডের দিন সেনাবাহিনীর উদ্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনদের নিকট রান্না করা খবার বিতরণ করা হয়েছিল। এছাড়া অগ্নিকান্ডের উদ্ধার তৎপরতায়ও সেনাবাহিনী ব্যাপকভাবে অংশ নিয়েছিল।

dsc00086

অপরদিকে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মানজারুল মান্নান দুরছড়ি বাজার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন শেষে বাজারের মন্দির মাঠে এক সংক্ষিপ্ত সভায় তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য জনপ্রতি বিশ কেজি চাউল ও নগদ পাঁচশত টাকা হারে বরাদ্দ দেন। এবং বাজার উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহনের ব্যাপারে আশ্বাস দেন। এসময় বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তাজুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সুমিতা চাকমা, খেদারমারা ইউপি চেয়ারম্যান সন্তোষ বিকাশ চাকমা, বাঘাইছড়ি ইউ আর সি আবু মুসা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য বৃহষ্পতিবার দুরছড়ি বাজারে সাড়ে এগারটার সময় একটি লেপের দোকান থেকে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ফলে ২শত ৮০ টি ছোট বড় দোকান পুড়ে যায়। এতে ২৫০ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এতে কমপক্ষে আশি কোটি টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে সূত্র জানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *